ভারতে চিকিৎসা পাচ্ছে না মানুষ, গোশালায় যাচ্ছে অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার

করোনায় আক্রান্ত রোগীরা চিকিৎসার অভাবে মারা যাচ্ছে। আর এদিকে গরুদের জন্য অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার পাঠাচ্ছে প্রশাসন। ভারতের উত্তরপ্রদেশের সরকারি গোশালায় এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠাচ্ছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার। রাজ্য সরকারের তরফে এক প্রেস বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। পরে এ নিয়ে বিতর্ক শুরু হলে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দফতর থেকে দাবি করা হয়, গোশালায় কর্মরত কর্মীদের জন্যই এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হয়েছে।

এর আগে এক বিজ্ঞপ্তিতে যোগী আদিত্যনাথের দফতর জানায়, প্রত্যেক জেলায় সরকারি গোশালায় গরুদের দেখভালের জন্য হেল্পডেস্ক তৈরি করা এবং গরুদের সুরক্ষার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে জেলা প্রশাসনগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

সরকারি ফরমান অনুযায়ী, প্রতিটি গোশালায় কোভিড বিধি মানতে হবে। সেখানে মাস্ক পরা, থার্মাল স্ক্রিনিং বাধ্যতামূলক। একইসঙ্গে নির্দেশ, গোশালার গরুদের জন্য চিকিৎসা সামগ্রী যেন পর্যাপ্ত থাকে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিচার করে প্রত্যেক জেলায় ৭০০টি হেল্পডেস্ক তৈরি করা হয়েছে গরুদের কল্যাণের জন্য। ৫১টি অক্সিমিটার, ৩৪১টি থার্মাল স্ক্যানার পাঠানো হয়েছে গরুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য। রাজ্যের বিপুল সংখ্যক ভবঘুরে গবাদি পশুকে সরকারি গোশালায় আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। গোশালার সংখ্যাও দ্রুত বাড়ানো হচ্ছে।

রাজ্য সরকারের এমন বিবৃতির পরই সমালোচনা শুরু হয়। সমালোচকরা বলছেন, যেখানে মানুষ ঠিকমতো চিকিৎসা সরঞ্জাম পাচ্ছে না, সেখানে গরুর জন্য রীতিমতো তোড়জোড় শুরু করেছে সরকার। মানুষকে উপেক্ষা করে গরুর জন্য অক্সিমিটার, থার্মাল স্ক্যানানের মতো সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে। এমন সমালোচনার মুখেই পরে ভোল বদলায় মুখ্যমন্ত্রীর দফতর। দাবি করা হয়, গরুর জন্য নয় বরং গোশালার কর্মীদের জন্যই পাঠানো হয়েছে এসব চিকিৎসা সামগ্রী। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top