সেলিব্রিটিদের রূপচর্চার ‘অদ্ভুত ও বিদঘুটে’ গল্প

সৌন্দর্যের প্রতীক হয়ে ওঠেন সেলিব্রিটিরা। তাই ভক্তরা তাদের সৌন্দর্যের রহস্য জানতে বেশ অস্থির হয়ে থাকেন। তারকারা নিশ্চয়ই এমন কোনো উপায় লুকিয়ে রাখেন যা তাদের সৌন্দর্যের আসল রহস্য। এখানে দেখে নিন কয়েকজন তারকার সৌন্দর্য চর্চার নমুনা যা বেশ অদ্ভুত এবং বিদঘুটে বলেই মনে হবে।

১. সুন্দরী নারীর প্রতীক গিনেথ প্যালেট্রো। তিনি বয়সের বলিরেখা দূর করতে নাকি সাপের বিষের চিকিৎসা নেন। দ্য ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়। এটা বোটক্সের মতো কাজ করে বলে জানান এক সুইস বিজ্ঞানী। গিনেথের মতো অভিনেত্রী ডেবরাও সাপের বিষ দিয়ে তৈরি ক্রিম ব্যবহার করেন।

২. ব্লেক লিভলির চুল দেখে কেউ চোখ সরাতে পারেন না। বায়ারডাই নামের একটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি জানান, দারুণ স্বাদের মেয়োনিজ তিনি চুলে ব্যবহার করেন। এই দারুণ টিপসটি তার মা তাকে দিয়েছিলেন।

৩. ফেসিয়ালের জন্যে ভিক্টোরিয়া বেকহেমের কাছে সবচেয়ে কার্যকর প্রসাধন নাইটিঙ্গেল পাখির বিষ্ঠা। জাপানি গেইশা নারীরা নাকি এটি ব্যবহার করেই এতো রূপের পসরা ঘটিয়েছেন।

৪. মেকআপ তুলতে আঠালো টেপ ব্যবহার করেন লেডি গাগা। এমনিতেই তিনি অদ্ভুত এবং বিদঘুটে মেকআপ নেওয়ার ওস্তাদ। তারওপর এগুলো তোলার কাজটাও অদ্ভুত উপায়েই করেন।

৫. ডেইলি মেকওভার জানায়, কেট হোমস তার মুখে নাড়িভূড়ি দিয়ে বানানো ক্রিম ব্যবহার করেন। এ দলে রয়েছেন ‘ডেসপারেট হাউডওয়াইফ’ তারকা ইভা লনগোরিয়া।

৬. ডেমি মুরের সৌন্দর্য ধরে রেখেছে জোঁক। এগুলো নাকি রীতিমতো প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জোঁক। ত্বকে বসিয়ে দিলে বিষাক্ত রক্ত চুষে খায়। দেহের বিষাক্ত রক্ত বের করে দিয়ে অপরূপ হয়েছেন তিনি।

৭. মলদ্বারে বেশ কয়েকটি শিরা এসে মিশেছে। সেখানে এক ধরনের ঘন তরল তৈরি হয় যা চোখের নিচে মাখের সান্দ্রা বুলক।

৮. জেনফার লাভ হিউইট মুখরে ব্রন দূরীকরণে টুথপেস্ট ব্যবহার করেন। এই উপায়ে ত্বকে অনাকাঙ্ক্ষিত লালচে ভাবও নাকি দূর হয়।

৯. বিউটি কুইন হ্যালি বেরি বডি ক্লিনজারেরে সঙ্গে কফির গুঁড়ো মিশিয়ে নেন। এই পদ্ধতি নাকি তার ত্বকের বাড়তি মেদের অংশ কমিয় দেয়।

১০. সন্তান হওয়ার পরও এতটা ফিট এবং ত্বকের সৌন্দর্য কিভাবে ধরে রেখেছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। তিনি অতি দামি খাবার ক্যাভিয়ার ব্যবহার করেন।

১১. জেসিকা সিম্পসন এবং কিম কার্দাশিয়ানকে এমন কাজ করতে দেখা গেছে। স্পা নিয়ে একেবারে বিদঘুটে পদ্ধতি গ্রহণ করেন তারা। পায়ের মৃত ত্বক তুলে ফেলতে তারা পা দুটো একট অ্যাকুরিয়ামে ডুবিয়ে দেন। সেখানে থাকে দাঁতবিহীন ছোট ছোট বিশেষ প্রজাতির মাছ। এরা মৃত ত্বক ঠুকরে খেয়ে ফেলে।

১২. রেডিয়ান্ট চুলের জন্যে বেশ বিখ্যাত নিকোল কিডম্যান। এর জন্যে দারুণ এক পদ্ধতি গ্রহণ করেন তিনি। ক্যাডবেরি ফলের জুস ঢেলে দেন চুলে।

১৩. পরীর মতো চেহারায় জ্বলজ্বলে ত্বক স্কারলেট জোহানসনের। তিনি নাকি তার সিডার ভিনেগার ত্বকে নিয়মিত ব্যবহার করেন। ২০১৩ সালে এলি ইউকে এর এক সাক্ষাৎকারে এই রহস্য উন্মোচন করেন তিনি।

১৪. ত্বককে কোমল ও মসৃণ করতে খাঁটি অলিভ ওয়েল ব্যবহার করেন জুলিয়া রবার্টস। এমনকি এই তেল তিনি নখেও ব্যবহার করেন।

১৫. ক্ষুধা লাগলে কেউ জাম্বুরার রস খায়? খালি পেটে জেনিয়ার লোপেজ এটাই খান। এই রসই নাকি তার মোহনীয় অবয়বের কারণ। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস – See more at: http://www.kalerkantho.com/online/entertainment/2015/03/26/203075#sthash.byz7Cd5x.dpuf

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top