দেশীয় শালে শীত ঠেকান

হাঁটি হাঁটি পা পা করে শীত চলে আসছে। কিন্তু শীতের জন্য আপনি প্রস্তুত হয়েছেন তো? না হলে এখন থেকেই শুরু করতে হবে শীতের প্রস্তুতি। শীতে ঋতুর সুবিধা হচ্ছে অনেকেই নিজেকে এ সময় ফ্যাশনেবলভাবে উপন্থাপন করতে পারেন। অনেকে আবার অপেক্ষা করতে থাকেন কখন শীত আসবে আর নিজেকে ফ্যাশনেবলভাবে সাজাবেন। শীতের স্টাইলে এখন জায়গা করে নিয়েছে কোট, ব্লেজার অথবা সোয়েটার। তবে দেশিও পোশাক কিন্তু শাল।

এদেশে শালের কদর ছিল আছে এবং থাকবে। এর সহজ ব্যবহারই একে টিকিয়ে রাখবে। তাই দেশের যে কোনো বুটিক হাউজে গেলেই পেয়ে যাবেন আপনার পছন্দের শাল। আগে মানুষ শুধু পাঞ্জাবী অথবা শাড়ির সঙ্গে শাল পরতো। এখন সেই সময় নেই আর যে কেউ চাইলে যে কোনো কিছুর সঙ্গেই শাল পরে থাকেন। বেশ কয়েক বছর ধরে শুধুমাত্র কালো শাল ছেলেদের ফ্যাশনের অনুসঙ্গ হতো। কিন্তু না এবার বাজারে গেলে পাবেন বিভিন্ন রঙ আর ডিজাইনের শাল। দেশীয় বুটিক হাউজগুলোও তাদের হরেক রকম শাল নিয়ে উপস্থিত হয়েছে। এদের মধ্যে দেশী- দশ অন্যতম।

কোথায় গেলে আপনি কেমন শাল পাবেন? আসুন জেনে নেই কোথায় কেমন শাল পাওয়া যায়।

সৃষ্টি: আপনি পশমী শাল পাবেন দেশী-দশে ঢুকলেই সারির একদম প্রথম দোকান সৃষ্টিতে। সেখানে ছেলেমেয়ে উভয়ের জন্যই শাল রয়েছে। দামেও খুব সস্তা। মাত্র ৮০০ থেকে ১০০০ টাকায় পেতে পারেন আপনার প্রিয় শাল। এখানে শালের পাশাপাশি মেয়েদের কার্ডিগান পাওয়া যায়। ১০০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকায় আপনি পেতে পারেন পছন্দের কার্ডিগান।

রঙ: দেশী- দশের আরেক জনপ্রিয় আউটলেট হলো রঙ। রঙ সবসময় রঙিনভাবেই সাজে। এবার শীতেও তাই রঙ সেজেছে তার পসরা নিয়ে। এখানে শালের পাশাপাশি পাবেন কোটি ও ফুল হাতা টি শার্ট।

অঞ্জনস: অঞ্জনসের শালের দাম শুরু হয়েছে ৫৯৫ থেকে ২৫৯৫ টাকা পর্যন্ত। এখানে শাল ছাড়াও মেয়েদের পঞ্চ, স্কার্ফ, মাফলার, জ্যাকেট, ব্লেজারসহ সাফারি স্যুটও পাবেন। বিভিন্ন রঙ ও ডিজাইনে অঞ্জন’স সব সময়ই সবার থেকে আলাদা।
বিবিয়ানা: দেশি দশের মধ্যে বিবিয়ানা একটু আভিজাত্য ধারণ করে। এর ফেব্রিক্সের রঙ, সুতা, ডিজাইন সব কিছুই একদম ভিন্ন। এখানে সাধারণ মানের শাল থেকে শুরু করে নকশীকাঁথার শালও পাওয়া যায়। ৫৮০ থেকে ৬২০ টাকায় সব শাল। আর নকশীকাঁথার শালগুলো পড়বে ৩৫০০ থেকে ৬০০০ টাকায়।

নিপুন: নিপুন সবসময়ই খাদিতে সেরা। মূলত: খদ্দর কাপড় দিয়েই নিপুন প্রথম যাত্রা শুরু করেছিলো। তাই এখানে খদ্দরের শাল পাবেন। পাশাপাশি পাবেন উলের মনিপুরি শাল। এছাড়া ছেলেদের ওয়েজকোট, মেয়েদের পঞ্চও পাবেন এখানে।
কে ক্র্যাফ্ট: এখানে শাল পাওয়া যাবে ৬৯৫ থেকে ২০০০ টাকায়। এছাড়া মেয়েদের টপস পাওয়া যাবে। ১২৫০ টাকা থেকে ২৫০০ টাকায়। যেগুলো লং স্টাইলের ফুল স্লিভ হবে। ছেলেদের মাফলার এখানে পাওয়া যাবে ১৫০ থেকে ৪৫০টাকায়।

বাংলার মেলা: এখানে শাল পাবেন ৪৫০ থেকে ১০৫০ টাকায়। এখানে খাদি কাপড়ের ফতুয়াও পাওয়া যায়, যেগুলোর দাম পড়বে ৬৫০ থেকৈ ৮৫০ টাকায়।

নগরদোলা: এখানেও শাল পাওয়া যায়। যেগুলোর দাম পড়বে ৫৯০ থেকে ১৭০০ টাকায়।
সাদাকালো: এখানে পেতে পারেন উলের শাল। যা ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে। এছাড়া কটনের শাল পাওয়া যায় এখানে। যেগুলোর দাম পড়বে ৭৮০ থেকে ২০০০ টাকা পর্যন্ত। এছাড়া এখানে ছেলেদের কোটি, জ্যাকেট পাওয়া যায়। সম্পূর্ণ উলের তৈরি পঞ্চ পাওয়া যায় এখানে। যেগুলো অনেক উষ্ণতা দিয়ে শীতের হাত থেকে বাঁচাবে।

তাই দেরি কেন আর। আজই তৈরি হয়ে নিন দেশি শালে শীত ঠেকাতে। শীতকে ভয় না পেয়ে ঘরে বসে না থেকে উপভোগ করুন। নিজেকে সাঁজান দেশীয় পোশাকে শাল দিয়ে আর হয়ে উঠুন ফ্যাশনেবল।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top