ধনকুবের পাত্র চেয়ে দেওয়া এক সুন্দরীর বিজ্ঞাপনের উত্তর দিলেন ভারতের সবচেয়ে ধনী মুখেস অম্বানি

মাঝে মাঝেই ফেসবুকে একটা পোস্ট ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়। এক সুন্দরী মেয়ে বিয়ের জন্য পাত্র খুঁজছেন। কিন্তু সুন্দরী হওয়া সত্বেও তাঁর জন্য পাত্র খুঁজে পাওয়া যায় না। যাবেই বা কী করে। যেমন তেমন পাত্র হলে তো চলবে না, হতে হবে ধনকুবের। অন্তত ১০০ কোটির মালিক হলে তবেই তিনি বিয়ের জন্য রাজি হবেন।

তাঁর এই ‘পাত্র চাই’ বিজ্ঞাপনের উত্তর আগে দিয়েছিলেন জে পি মর্গ্যান। এবার দিলেন রিলায়েন্স গ্রুপের কর্তা মুকেশ আম্বানি। কী বললেন অম্বানি?

২৫ বছরের সুন্দরীর ‘হাজব্যান্ড হান্ট’-এর যথাযথ উত্তর দিয়েছেন অম্বানি। অম্বানি ব্যাখ্যা করেছেন কেন মেয়েটির সৌন্দর্যের বিনিময়ে তিনি তাঁকে বিয়ে করবেন না। তাঁর মতে, মেয়েটি যা চাইছে তা আসলে ব্যবসা। তিনি তাঁর সৌন্দর্য দেবেন, বদলে নেবেন সেই ধনকুবেরের টাকা। অর্থাৎ টাকার বদলে জিনিস দেওয়া। কিন্তু ১০০ কোটি টাকা দিয়ে কেউ এমন জিনিস কেন কিনবেন যা স্থায়ী নয়? সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সৌন্দর্য ফিকে হয়ে যাবে। কিন্তু অম্বানির ১০০কোটিরও বেশি টাকা দিনে দিনে আরও বাড়বে, কমবে না যদি না কোনও বড় ঘটন ঘটে। এই টাকা মূলধন করে আগামী ১০ বছর বাজারে খাটালে তা ফিরে আসবে কয়েকগুণ বেশি হয়ে। কিন্তু সৌন্দর্যই যদি মেয়েটির একমাত্র ‘অ্যাসেট’ হয় তবে ১০ বছর পর এই ‘অ্যাসেট’-এর কোনও ‘মার্কেট ভ্যালু’ থাকবে না।
যে ১০০ কোটি টাকার মালিক সে এতটাও বোকা নয় যে শুধুমাত্র সৌন্দর্যের জন্য একটি মেয়েকে বিয়ে করবে। বরং ডেটিং করবেন। উত্তরের শেষ লাইনে মেয়েটিকে ১০০ কোটির স্বামী না খুঁজে নিজেকে ১০০ কোটির মালিক বানানোর পরামর্শ দিয়েছেন মুকেশ অম্বানি।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top