যে কারণে ঈদ নিয়ে চাঁদ দেখা কমিটির দুই রকম ঘোষণা

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ঈদুল ফিতরের দিন নির্ধারণ নিয়ে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির ঘোষণা দুই রকম ছিল। প্রথমে ৬ জুন ঈদের দিন ঘোষণা করলেও পরে তা পরিবর্তিন করে ৫ জুন ঈদ হবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়। আর এ বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে বেশ সমালোচনা হয়।

চাঁদ দেখা কমিটি কেন দুই রকম ঘোষণা দিয়েছিল সোমবার (১০ জুন) তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব আনিছুর রহমান।

জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ধর্ম মন্ত্রণালয়–সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে আনিছুর রহমান জানান, ৪০-৪৫ জন আলেমের পরামর্শক্রমে সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রথমবার দেওয়া ঘোষণার আগে দেশের কোথাও চাঁদ দেখা যায়নি। তখন আলেম-ওলামারা মত দেন, সৌদি আরবে চাঁদ দেখা যাওয়ার সঙ্গে এ দেশের ঈদের সম্পর্ক নেই। দেশে চাঁদ দেখা যেতে হবে। এ কারণে প্রথম ঘোষণা আসে।

তিনি জানান, পরবর্তী সময়ে ধর্মীয় বিধান অনুযায়ী বিশ্বাসযোগ্য ব্যক্তি চাঁদ দেখতে পেয়েছেন। এ কারণে চাঁদ দেখা যাওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়।

এ জটিলতা এড়াতে চাঁদ দেখার উন্নত প্রযুক্তির যন্ত্র কিনবে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়। ধর্ম মন্ত্রণালয়–সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

চাঁদ দেখার জন্য থিওডোলাইট জাতীয় যন্ত্র কেনা হবে। প্রতিটির দাম পড়বে ৫০ লাখ টাকার মতো।

কমেন্টসমুহ
BD Life BD Life

Top