হোম কোয়ারেন্টাইন শেষে পুত্রবধূর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা চলছে চলছে খালেদার

শর্তসাপেক্ষে জামিনে মুক্তির পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্ধারিত ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষ হয়েছে। তবে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না পর্যন্ত তিনি ‘হোম কোয়ারেইনটাইনেই’ থাকবেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) গণমাধ্যমকর্মীদের এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, ‘দেশ এখন কার্যত লকডাউনের আওতায় রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে, শতভাগ সুরক্ষার জন্য তাকে (খালেদা জিয়া) কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। তিনি সেখানে নিরাপদে থাকবেন।’

‘দেশে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত খালেদা জিয়া তার গুলশানের বাসভবনে কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। পরে আমরা তার চিকিৎসা ও অন্যান্য সমস্যা সম্পর্কিত পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করব’, যোগ করেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের স্বাস্থ্যের অবস্থা সম্পর্কে জানতে চওয়া হলে ফখরুল বলেন, ‘খালেদা এখনও খুবই অসুস্থ এবং তার অবস্থার তেমন উন্নতি হয়নি। আমাদের অন্যতম প্রধান দাবি ছিল চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশ পাঠানো। দুর্ভাগ্যক্রমে সরকার সে অনুমতি দেয়নি।’

‘করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তাকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যসেবা দিতে পারছেন না। তবে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা যতটা সম্ভব তাকে চিকিৎসা দিচ্ছেন। আমরা আশা করি, এই চিকিৎসায় তিনি ভালো থাকবেন’, যোগ করেন ফখরুল।

এদিকে বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবাইদার তত্ত্বাবধানে ও নির্দেশনায় বেগম জিয়ার চিকিৎসা চলছে। তিনি লন্ডন থেকে চিকিৎসার সার্বিক বিষয় দেখাশোনা করছেন বলেও জানান ডা. জাহিদ।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মার্চ প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনক্রমে ছয় মাসের জন্য কারাগার থেকে মুক্তি পান খালেদা জিয়া। এরপর থেকেই তিনি হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলেন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top