অল্প সংখ্যক মানুষ কেন বাঁহাতি হয়?

অধিকাংশ মানুষ ডানহাতি হয়ে থাকেন। কিন্তু অনেকেই কেন বাঁহাতি হয়ে থাকেন? এ নিয়ে বহু গবেষণা হলেও এখন পর্যন্ত এর বিভিন্ন ব্যাখ্যা দেওয়া হয়। এব গবেষণা প্রতিবেদন জানায়, ৯-২০ শতাংশ মানুষ বাঁহাতি হয়ে থাকেন। সংখ্যাটি খুবই কম। কিন্তু প্রতিদিনের জীবনে তাদের নানা সমস্যায় ঠিকই পড়তে হয়।

দরজার লক খুলে নব ঘোরানো, ক্যান ওপেনার ব্যবহার ইত্যাদি বেশ কিছু কাজে ঝামেলা পোহাতে হয় বৈকি। যারা বাঁহাতি হয়ে জন্মগ্রহণ করে তাদের কাজ করার সময় ডান হাত ব্যবহারে উৎসাহ দেন বাবা-মায়েরা। স্কুল-কলেজে বাঁহাতিদের কটু কথাও শুনতে হয় বন্ধু-সহপাঠিদের কাছ থেকে।

ভূগোল এবং সামাজিক নানা কারণে বাঁহাতিদের আধিক্য দেখা দেয়। ইউরোপের ১৭টি দেশের মানুষের লেখার অভ্যাস পর্যবেক্ষণ করে এক গবেষণায় বলা হয়, ২.৫-১২.৮ শতাংশের মতো মানুষ বাঁহাতে লেখেন। তা ছাড়া নারীদের চেয়ে পুরুষদের মাঝেই বেশি সংখ্যাক বাঁহাতি দেখা যায়। এক পরিবারের সবাইকে বাঁহাতি হিসেবেও দেখা গেছে। আবার কোনো শিশু হয়তো বাঁহাতি ছিল, কিন্তু পরে ডানহাতি হয়ে গেছে। এর পেছনে জেনেটিক কারণ রয়েছে কিনা তা আজও স্পষ্ট নয়। তবে বেশিরভাগ গবেষণায় একে হয় বংশগত কারণে অথবা সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক কারণে বলে তুলে ধরা হয়েছে।

তবে অক্সফোর্ড সাইকিয়ার্টিস্ট টিম ক্রো জানান, সম্ভবত পিসিডিএইচ১ ১এক্স জিন হাতের এ বিষয়টি ঠিক করে দেয়। অক্সফোর্ডের আরেক বিশেষজ্ঞ ড. ফ্রাঙ্কসের মতে, ক্রোমোজোম ২-এর মধ্যে এলআরআরটিএম১ জিন এ জন্যে দায়ী থাকে।

প্রাণীজগতে ডানহাতি ও বাঁহাতি বিষয়টি নিয়ে বিস্ময়কর সব বিষয় লক্ষ্য করেছেন বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি এক গবেষণায় বলা হয়, অস্ট্রেলিয়ান ক্যাঙ্গারুরা সবগুলো বাঁহাতি। সেখানে বলা হয়, দ্বিপদি প্রাণীর ক্ষেত্রে হয়তো এমনটা হওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু চতুষ্পদ প্রাণীরা এ ধরনের বৈশিষ্ট্য প্রকাশ করে না।

প্রাণীর সংশ্লিষ্ট বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করতে মুরগীর ওপর গবেষণা করেছেন ড. লেসলি রজারস। তিনি জানান, চোখ এবং হাতের সঙ্গে সংযোগ রয়েছে। যেমন- যদি কোনো টিয়া পাখি ডান চোখে কোনো খাবার খেয়াল করে তবে স্বভাবতই সে তা নিতে ডান পা এগিয়ে দেবে। এই তত্ত্ব মস্তিষ্কের ‘হেমিস্ফিয়ার’ অংশের কথা তুলে ধরে। এই অংশটি ডান ও বামের বিষয়টি পরিষ্কার করে। কাজেই এই অংশটি স্বাভাবিকভাবেই বাঁহাতি বা ডানহাতি হিসেবে মানুষকে তৈরি করে। আবার হয়তো ডান চোখের কার্যক্রম ডানহাতি এবং বাম চোখের কার্যক্রম বাঁহাতি বৈশিষ্ট্যের জন্যে দায়ী।

এখন চোখের সঙ্গে হাতের সংযোগ যদি থেকেই থাকে, তবে অন্ধ হয়ে জন্ম নেওয়া শিশুদের ক্ষেত্রে কি ঘটতে পারে? এ বিষয়টি নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা রয়েছে বিজ্ঞানীদের। চক্ষু বিশেষজ্ঞ এবং মস্তিষ্ক বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত গবেষণা সম্পন্ন করে চান বিজ্ঞানীরা। আর তার পরই হয়তো স্পষ্টভাবে জানবেন, আপনি কেন ডান অথবা বাঁহাতি?

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top