বাড়িতেই হয়ে যাক নিউ ইয়ারের জমকালো এক পার্টি!

থার্টি ফার্স্ট নাইট মানেই তরুণ প্রজন্মের এখানে সেখানে ঘুরোঘুরি, শীত উপেক্ষা করে রাতভর আড্ডা, কনসার্ট কতো কী! কিন্তু এবার তার কিছুই হবে না, কঠোর নিরাপত্তায় ঢাকার কোথাও বাইরে ঘুরোঘুরি করার উপায় নেই। তাহলে কী করবেন ভাবছেন? বাড়িতেই একটা নিউ ইয়ার পার্টির আয়োজন করে ফেলুন। বাইরে যেতে পারছেন না তো কি হয়েছে, বাড়িতেই পরিবার এবং বন্ধুদের নিয়ে দারুণ কাটাতে পারবেন সময়টা। দেখে নিন এই পার্টি আয়োজনের কিছু টিপস।

১) রাত্রে যেহেতু বাইরে নিরাপত্তার বলয়, সুতরাং যাদের এই পার্টিতে দাওয়াত দেবেন তারা রাত্রে থেকেই যাবেন তা ধরে নিয়ে পার্টি আয়োজন করতে পারেন।

২) পার্টি যেন একদম ঝঞ্ঝাটমুক্ত হয়, তার জন্য জরুরী কিছু জিনিস সংগ্রহ করে রাখুন। যেমন পেপার ন্যাপকিন (টিস্যু), যথেষ্ট পানি, ওয়ান টাইম ইউজ গ্লাস, প্লেট চামচ ইত্যাদি। তবে পুরো জিনিসটাই নিজের বাজেট অনুযায়ী করতে হবে।

৩) পার্টিটাকে সহজ আর আরও মজাদার করে তুলতে প্রত্যেককে বলুন একটা করে ডিশ রান্না করে নিয়ে আসতে। খুব বেশি ঘটা করে রান্নাবান্না করার দরকার নেই। যারা রান্না করতে পারবে না তারাও চিপস, ড্রিঙ্কস, ফ্রাই এসব ছোটখাটো খাবার নিয়ে আসতে পারবে। থার্টি ফার্স্ট নাইটের ডিনার সবাই মিলে বসে পোলাও খেতে হবে এমনটা নয়, বরং হালকা খাবার খেয়েই কাটিয়ে দিতে পারেন। বারান্দা, ছাদ বা লনে বারবিকিউ করতেও পারেন। সবাই মিলে মজা করাটাই হলো আসল।

৪) গেস্টদের মাঝে অন্তত একজন যেন ক্যামেরা নিয়ে আসে এবং সবার ছবি তুলে দেয়, এটা ঠিক করে রাখুন। কারণ বাংলাদেশে এখন ফেসবুক সহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ভীষণ জনপ্রিয়। আপনার পার্টিতে আসা হয়েছে অথচ ছবি তোলা হয়নি, এটা ভেবে নিশ্চয়ই আপনি মন খারাপ করতে চাইবেন না। সবারই যেন ছবি তোলা হয় এটা নিশ্চিত করতে একাধিক “ফটোগ্রাফার” বন্ধু থাকলে ভালো।

৫) ঘর সাজাতে ব্যবহার করতে পারেন মোমবাতি। অনেকগুলো মোমবাতি জ্বালিয়ে আলো নিভিয়ে দিলে দারুণ মিষ্টি একটা পরিবেশ তৈরি হবে। এছাড়াও বেলুন, রিবন দিয়ে সাজিয়ে ফেলতে পারেন ঘর। একটু সফিস্টিকেটেড লুক আনতে টেবিলের ওপর ছোট ছোট ফুলের বুকে রাখতে পারেন।

৬) বাড়িতে অনেক মানুষ আসবে। বেশ চাপাচাপিও হতে পারে। এটা মাথায় রেখে ঘর একটু গুছিয়ে ফেলুন। বিভিন্ন টেবিল, শেলফ, ওয়ারড্রোবের ওপরে থাকা জঞ্জাল সরিয়ে ফেলুন। বেশি জিনিসপত্র বাইরে রাখবেন না। গেস্টদের সাথে উটকো মানুষজন ঢুকে পড়ে জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে যেতে পারে। আবার ছোট বাচ্চা গেস্টের সাথে আসলে জিনিসপত্র ভেঙ্গে/ছিঁড়ে ফেলতে পারে। তাই বেশি ডেকোরেশন বাইরে রাখার দরকার নেই।

৭) সবাই বসার জায়গা পাবে কিনা ভেবে দেখুন। এক্সট্রা চেয়ার, টুল, কুশনের ব্যবস্থা করুন। গেস্টরা রাত্রে থাকলে সবার জায়গা হবে কিনা ভেবে দেখুন। বালিশ, কম্বল, তোশকের ব্যবস্থা করে রাখুন।

৮) গেস্টদের ব্যাগ এবং এক্সট্রা শীতের জ্যাকেট/সোয়েটার রাখার জন্য নিজের একটা কোট র‍্যাক/হ্যাঙ্গার/ক্লজেটের কিছুটা জায়গা খালি করে রাখুন।

৯) গেস্ট এলে এবং খাওয়া দাওয়া করলে আপনার বাথরুম এবং টয়লেট ব্যবহার করবেই কেউ না কেউ। এ কারণে অবশ্যি ভালো করে পরিষ্কার করে রাখুন টয়লেট ও বাথরুম। হাতের কাছে পরিষ্কার টাওয়েল রাখুন, বেশি করে টয়লেট পেপার রাখুন, হাত ধোয়ার জন্য হ্যান্ড ওয়াশ রাখা ভালো। নিজের ব্যবহারের কিছু ব্যক্তিগত টয়লেট্রিজ এ সময়ে সরিয়ে রাখাই ভালো।

১০) মিউজিকের ব্যবস্থা করতেই হবে। মিউজিক ছাড়া আবার পার্টি হয় নাকি? অবশ্যই এমন মিউজিক বেছে নিতে হবে যা সব গেস্টই পছন্দ করবে। শুধু আপনার নিজের পছন্দকে প্রাধ্যান্য দেবেন না। দরকার হলে বন্ধুদের পরামর্শ নিন এ ব্যাপারে। আর এতো বেশি উচ্চস্বরে গান বাজাবেন না যাতে প্রতিবেশীরা বিরক্ত হয়।

১১) থার্টি ফার্স্ট নাইটে সবাই কি শুধু আড্ডা দেবে? গেস্টরা যাতে একসাথে কিছু করতে পারে তার জন্য কিছু বোর্ড গেম রাখতে পারেন, যেমন লুডো অথবা মনোপলি, বাচ্চাদের জন্য থাকতে পারে পাজল বা ক্রসওয়ার্ড। এছাড়া বাসায় জায়গা থাকলে মিউজিক্যাল চেয়ার, গানের কলি, পিলো ফাইট এগুলোও চলতে পারে। এমনকি প্রতিটা খেলার জন্য ছোট্ট ছোট্ট প্রাইজেরও ব্যবস্থা রাখতে পারেন। সবাই হয়তো অন্যদের সাথে মিশতে তেমন পছন্দ করে না। তাদের জন্য টিভি খুলে রাখতে পারেন একটা ঘরে, থাকতে পারে বই বা ম্যাগাজিন। বাচ্চাদেরকে কিছু ক্রেয়ন আর কাগজ দিয়ে বসিয়ে দিতে পারেন এক জায়গায়। যদি বেশি বাচ্চা থাকে তবে আপনার কোন বন্ধুকে কৌতুক বলা বা ম্যাজিক দেখানোর জন্য বলে রাখতে পারেন।

১২) পোশাকের ব্যাপারটা মাথায় রাখুন, পার্টির জন্য ভালো পোশাক আশাক পরতে পছন্দ করে সবাই। আপনি দাওয়াত দেওয়ার সময়ে বিশেষ কোন থিম বা ড্রেস কোড ঠিক করে দিতে পারেন। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, সব ছেলেকে নীল এবং সব মেয়েকে গোলাপি পোশাক পরে আসতে বললেন। সবাই যখন এই ড্রেস কোড মেনে পোশাক পরে আসবে তখন কী দারুণ লাগবে বলুন তো!

নিউ ইয়ারের পার্টি করতে চাইলে তাতে এই টিপসগুলো কাজে লাগাতে পারেন। আবার নিজেও বুদ্ধি খাটিয়ে কিছু কাজ করতে পারেন। পার্টি তো আপনারই!

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top