রিথী কবীর এর হার না মানার গল্প

বেকারত্ব দেশের অন্যতম প্রধান সমস্যা। আর্থিক সমস্যা কাটানোর জন্য যুবকরা বেছে নিচ্ছে অসাধু পথ। ডিজিলাইজেশন এর যুগে ছেলে মেয়েরা দিনের অধিকাংশ সময় নষ্ট করছে মোবাইল, কম্পিউটার এবং বিভিন্ন প্রযুক্তির মাঝে এবং হারিয়ে যাচ্ছে সৃজনশীলতা।

কিন্তু এখনো কিছু মানুষ আছে যারা প্রযুক্তির সাথেই তাল মিলিয়ে বাড়াচ্ছে তাদের আয় – ইনকাম , দেখাচ্ছে সৃজনশীল প্রতিভা অনলাইন বিজনেস এর মাধ্যমে। এমন এক গল্প বলার জন্যই সাথে আছে রিথী কবীর ( অনলাইন বিজনেসম্যান, কবীর’স পেজের ফাউন্ডার )

 

রিথীর ভাষায় – “আমি ১৭ বছর বয়সী কলেজের এক ছাত্রী । ৩/৪ বছর থেকে ফেসবুক ব্যবহার করছি। এই ফেসবুক থেকেই আমার সাফল্য গাঁথা শুরু। আমি ৭-৮ মাস আগে একটি পেজ খুলি বিজনেস এর জন্য। প্রথমে আমার মূলধন কম ছিল অনেক। অল্প কিছুই লাভ হত সেখান থেকে। কিছুদিন লোকসান ও হয় প্রচুর। সাথে ছিল পড়ালেখার চাপ। কিন্তু আমি হার মানি নি কোনও অবস্থাতেই। চালিয়ে গেছি আমার কাজ। তারপর আস্তে আস্তে আমার পেজ এর সুনাম ছড়াতে থাকে, আমার হাতের তৈরি করা বিভিন্ন কেপ, সালোয়ার কামীজ, শাড়ি ইত্যাদি মানুষের প্রশংসা কুড়াতে থাকে এবং আস্তে আস্তে আমি নিজেকে একজন ইন্টারপ্রেনিউর হিসেবে প্রতিষ্ঠা করি। এখন আমি আমার অনলাইন বিজনেস নিয়ে খুবই সন্তুষ্ট এবং সামনে আমি আরো ভালো কাজ করতে পারব বলে আশা করি। আমার সমবয়সীদের আমি বলতে চাইব ইচ্ছা থাকলে যেকোনো কাজ করা সম্ভব। সবার মাঝেই কিছু না কিছু সুপ্ত প্রতিভা থাকে যা সময়মত বের করে আনা প্রয়োজন। মানুষের জীবন শুধু বিনোদন এর মাঝেই সীমাবদ্ধ নয়, পারিপার্শ্বিক আরো কিছু কাজ সবারই করা উচিৎ। কবি অযথাই বলেনি, “১৮ বছর বয়স হারতে শিখে নি ।”

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top