মেয়েলি স্বভাবের জন্য বহু ঠাট্টা হজম করেছেন করণ

এমন অনেক পুরুষ আছে যাদের হাব-ভাব, আচরণ মেয়েদের মতো। এমন অনেক নারীও আছেন যাদের চাল-চলন ছেলেদের মতো। সেই নারীদের কিন্তু এতটা কটূক্তির স্বীকার হতে হয় না, যতটা একটা পুরুষকে হতে হয়।

মেয়েলি হাবভাবের জন্য কম কটূক্তি হজম করতে হয়নি পরিচালক করণ জোহরকে। স্টার প্লাসের রিয়ালিটি শো ‘ইন্ডিয়াস নেক্সট সুপারস্টারে‘ তাঁর জীবনের সেই কঠিন পর্যায়ের কথা শোনালেন করণ। এই শো’ এর বিচারক পরিচালক-প্রযোজক করণ জোহর এবং রোহিত শেট্টি। শোয়ের আপকামিং এপিসোডে সেই যন্ত্রণাদায়ক দিনগুলোর কথা জানালেন তিনি।

শো’-তে একটি পারফরমেন্স মন কেড়ে নেয় করণের। পারফরমেন্সটিতে একজন পুরুষ প্রতিযোগি মেয়েলি ছেলের ভূমিকায় অভিনয় করেছিল। চরিত্রটি একটি ছেলে হলেও সে মেয়েদের মত হাঁটে, মেয়েদের গানে নাচ করে। সেই পারফরমেন্স দেখে ইমোশনাল হয়ে যান তিনি। তারপরই খুলে বলেন তাঁর ছোটবেলার এক ঘটনা।

স্কুলে তাকে মেয়েলি আচরণের জন্য ঠাট্টার পাত্র হতে হত। এমনকী তাঁকে ‘পানজি’ (pansy) বলে ডাকা হত। পানজি আসলে একটি স্ল্যাং। শব্দটি ব্যবহার করা হয় মেয়েলি স্বভাবের ছেলেদের জন্য। তাও আবার আক্রমনাত্মক ঠাট্টার ছলে। এমন মন্তব্য নিতে না পেরে সোজা চলে যান এক শিক্ষিকার কাছে। সেই শিক্ষিকা তাঁকে মনে সাহস জোগান, বলেন অন্যের ঠাট্টার জন্য নিজেকে না বদলাতে। সাহস পান তিনি।

এই উপদেশই তাঁকে অনেকটা বদলে ফেলে। আদবকায়দা না বদলে নিজের জন্য লড়তে শেখেন তিনি। তাঁর মতে এখন যদি তাঁর কোন এক সন্তানের আদবকায়দা অন্যরকম হয় তাহলে তিনি তাঁর সন্তানকে একেবারেই বদলাবার চেষ্টা করবেন না।

সূত্র : কলকাতা টুইন্টিফোর।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top