বান্দরবানের দেশের সর্বোচ্চ সড়ক উদ্বোধন হচ্ছে আজ

সমুদ্রপৃষ্ট থেকে প্রায় ২৫শ’ ফুট উচ্চতায় দেশের সর্বোচ্চ সড়ক বান্দরবানের থানছি আলীকদম সড়ক। সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগ টানা এক যুগ অক্লান্ত পরিশ্রম করে সড়কটি নির্মাণ করেছে। প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সড়কটি নির্মাণে খরচ হয়েছে ১২০ কোটি টাকা। সড়কটি শুধু দেশের সর্বোচ্চ সড়কই নয় এটি দক্ষিণ এশিয়ার উচ্চতম সড়কগুলোর একটি। আগামী সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বান্দরবান জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের অন্যতম এই সড়কটির উদ্বোধন করবেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি বান্দরবান জেলঅ প্রশাসক কার্যালয়ের ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া সেনাবাহিনীর সোস্যাল ওয়ার্ক অর্গানাইজেশনের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল ওহাব, বান্দরবানের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নকিব আহম্মদ, জেলা প্রশাসক মিজানুল হক চৌধুরী, সড়ক বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আরিফুর রহমানসহ উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ এতে উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গেছে। গত মে মাসে সড়কটির উদ্বোধনের কথা থাকলেও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সড়কটির বেশ কিছু অংশের মাটি ভেঙে যাওয়ায় তা আর হয়নি। সড়কটির ক্ষতিগ্রস্ত অংশগুলো সংস্কারের পর এটি এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। তবে যানবাহন চলাচলের জন্য সড়কটি খুলে দিতে আরো বেশ কিছুদিন সময় লাগতে পারে বলে সংশ্লিষ্ঠরা জানিয়েছেন। সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগ ১৯ ইসিবির জেষ্ঠ কর্মকর্তা মেজর মাহাবুবুল হক জানান, ২০০৬ সালে থানছি ও আলীকদম উপজেলা সীমান্তের ডিম পাহাড় দিয়ে সড়কটির নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। প্রথমে সড়ক ও জনপথ বিভাগ সড়কটির নির্মাণ কাজ শুরু করলেও পরে এটি সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগ ১৬ ইসিবি ও ১৭ ইসিবি কাজ সম্পন্ন করে। চলতি বর্ষা মৌসুমে প্রবল বর্ষনের কারণে সড়কটির বেশ কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এগুলোর সংস্কার কাজ চলছে। আগামী ১৪ জুলাই মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সড়কটির উদ্বোধন করবেন। বান্দরবানের চিম্বুক রেঞ্জের (চিম্বুক পাহাড়) ডিম পাহাড় অংশটির উচ্চতা প্রায় ২৫শ’ ফুট। এত উচ্চতায় পাহাড়ের ধাপ কেটে সড়ক নির্মাণ যেমন ব্যয়বহুল তেমনি ঝুকিপূর্ণও। সেনাবাহিনীর প্রকৌশল শাখার সদস্যরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে ডিম পাহাড়ের ৬০/৭০টি ধাপ কেটে সড়কটি নির্মাণ করে। তাই ডিম পাহাড় থেকে দেখলে মনে হবে যেন সাপের মত আঁকা বাঁকা হয়ে সবুজের ভেতর দিয়ে নিচে নেমে গেছে সড়কটি। সড়কটি বান্দরবানের থানছি উপজেলা থেকে আলীকদম হয়ে চট্টগ্রাম কক্সবাজার সড়কের সাথে মিশেছে। দেশের উচ্চতম এই সড়কটির অন্যতম দিকই হচ্ছে এর প্রকৃতিক সৌন্দর্য। সমৃদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় আড়াই হাজার ফুট উচ্চতায় সবুজের ভেতর দিয়ে আঁকা বাঁকা সড়কটি বান্দরবানের পর্যটন শিল্পকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিবে এমনটাই আশা স্থানীয়দের।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top