ওজন কমাতে চান? ব্যায়াম করা “বন্ধ” করে দিন!

অবাক হচ্ছেন? ব্যায়াম বন্ধ করে দিন মানে? ব্যায়াম না করলে ওজন কমবে কী করে? আপনি কি জানেন, ব্যায়াম করলেই ওজন কমে এটা আসলে সত্যি নয়। বেশিরভাগ মানুষের ক্ষেত্রেই ব্যায়াম করা কোন কাজে লাগে না! তাহলে কী করে ওজন কমাবেন? সেই বুদ্ধিও আছে বৈকি!

ওজন বেড়ে যাচ্ছে এ ব্যাপারে আশেপাশের মানুষের কটূক্তি অথবা ওজন মাপার যন্ত্রে উঠে থাকা ভয়াবহ সংখ্যাটি দেখে অনেকেই অনুতপ্ত হন। এরপর নিজেকে শাস্তি দেবার জন্যই তারা খাওয়া দাওয়া কমিয়ে দেন এবং শুরু করেন ঘাম ঝরানো। জিমে গিয়ে অন্যান্যদের সিক্স প্যাক অথবা ছিপছিপে তন্বী দেহ দেখে স্বপ্ন দেখেন তার নিজের শরীরটাও এমন হয়ে উঠবে। কিন্তু নির্মম সত্যি কথাটা হলো, ব্যায়ম করে ওজন কমিয়ে ছিপছিপে হয়ে গেছেন, এমন মানুষ খুব কমই আছেন। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা যায়, ২১০ জনের মাঝে ১ জন পুরুষ এবং ১২৪ জনের মাঝে একজন নারী তাদের মুটিয়ে যাওয়া অবস্থা থেকে ব্যায়ামের সাহায্যে স্বাভাবিক ওজন ফিরে আসতে পেরেছেন। এর মুল কারণ হলো আমরা নিজের ইচ্ছেয় ব্যায়াম করি না বরং বাধ্য হয়ে ব্যায়াম করি। ব্যায়াম যে উপভোগ করার জিনিস তা আমরা মোটেই ভাবি না।

ব্যায়াম থেকে এতো কম মানুষ উপকার পেয়ে থাকেন বলেই মানুষ ব্যায়ামের প্রতি বিমুখ। আর কেউ যদি নিমরাজি হয়ে জিমে যাওয়াও শুরু করেন, তারা এর প্রতিটি মিনিট অপছন্দ করে থাকেন। বেশিরভাগ মানুষই দিনে ৩০ মিনিটও ব্যায়াম করেন না (শ্রমিক শ্রেণীর মানুষের কথা বাদ দিলে)। কিন্তু কথা হলো ব্যায়াম না করে ওজন কমাবেন কী করে? এখানে লুকিয়ে আছে একটি কৌশল। কষ্ট হয় এমন ব্যায়াম না করে আপনি যদি এমন কিছু করেন যাতে শরীরটাকে আরও ঝরঝরে লাগে, তাহলে কেমন হয়?

ব্যায়ামকে ব্যায়াম না ভেবে যদি সময় কাটানোর একটি উপায় ভাবেন তাহলেই অনেকটা উপকার হবে। ব্যায়াম কোনো শাস্তি নয়, কোনো দায়িত্ব নয়, লজ্জার কোনো বিষয় নয়। ব্যায়াম করলে আপনার শরীরটা সাথে সাথেই ভালো লাগবে। আর এর ফলে যদি ওজন কমে তাহলে সেটা একটা বোনাস। তাই বন্ধ করে দিন “ব্যায়াম” আর ভাবুন আপনি জিমে বা বাসাতে যে কসরত করছেন, সেটা আসলে আপনার নিজেরই জন্য কিংবা বিনোদনের জন্য। আপনাকে যারা মোটা বলছে তাদের সন্তুষ্টির জন্য নয়। ব্যায়ামের ব্যাপারটাকে এভাবে দেখলে আছে কিছু উপকারিতা, যেমন:

১) ব্যায়াম শুরু করার সাথে সাথে আপনার শরীরটা ঝরঝরে লাগা শুরু করবে, এক মিনিটও দেরি হবে না।
২) নিজের ওপর পুরো নিয়ন্ত্রণ থাকবে আপনার। আপনার ওপর কেউ কর্তৃত্ব করতে আসবে না। না আপনার বস, না আপনার মা, না আপনার গার্লফ্রেন্ড।
৩) শরীরচর্চা স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে। আপনার মনে এনে দেয় শান্তি। আর স্ট্রেস কমলে আপনার অতিরিক্ত খাওয়ার ইচ্ছেটাও কমে যাবে।
৪) ব্যায়াম আপনার বুদ্ধি বাড়িয়ে দেয়। এর জন্য আপনাকে অপেক্ষাও করতে হবে না। ব্যায়ামের ঠিক পরেই আপনার বুদ্ধি এবং মানসিক শক্তির পরিমান থাকে আগের চাইতে বেশি।

আর তাই, কষ্ট করে ব্যায়াম করা বন্ধ করে দিন। আর উপভোগ করুন নিজের শরীর চর্চা। সেটা হতে পারে নাচ, হতে পারে বাগান করা, হতে পারে ঘরের কাজ, স্কেটিং বা কোন ধরণের খেলা। ব্যায়াম করা মানেই কেবল জিমে গিয়ে ব্যায়াম নয়। বরং এইসব মজার কাজের মাধ্যমেই ক্যালোরি পোড়ান, ঘাম ঝরান। ব্যায়াম করার সুফল মিলবে এতেই।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top