ওজন কমাতে চান? বেশি বেশি খেতে হবে এই খাবারগুলো

আমাদের বয়স যতো বাড়ে, তত কমে মেটাবলিজম আর দেখতে না দেখতে কয়েক কেজি ওজন চেপে বসে শরীরে। তখন খাওয়া কমাতে হবে ভেবে দুঃখ করেন অনেকেই। কিন্তু আপনি কী জানেন, এমন কিছু খাবার আছে যা বেশি করে খেলেই বরং আপনার ওজন কমবে?

খাদ্যভ্যাসে কিছু পরিবর্তন নিয়ে আসলে অতিরিক্ত ওজন কমানোটা সহজ হয়ে যায়। আমেরিকান জার্নাল অফ ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশনের এক গবেষণায় দেখা যায় গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম এবং প্রোটিন বেশি এমন খাবারগুলো ওজন কমাতে সবচাইতে বেশি সহায়ক।

এই গবেষণায় ১৬ বছর ধরে এক লক্ষ বিশ হাজার মানুষের খাদ্যভ্যাস পর্যবেক্ষণ করা হয়। দেখা যায়, রিফাইন্ড ময়দা, স্টার্চ, চিনি অর্থাৎ বেশি গ্লাইসেমিক ইনডেক্স যেসব খাবার সেগুলো অতিরিক্ত ওজন বাড়ানোর জন্য দায়ী। যেসব খাবারের গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম, যেমন বাদাম, দুধ, কিছু ফল ও সবজি- এগুলো ওজন ঠিক রাখতে সাহায্য করে। এটা অবশ্য অন্যান্য অনেক গবেষণাতেও দেখা যায়। তবে এই গবেষণায় উঠে আসে আরো কিছু অবাক করা তথ্য। দেখা যায়, কিছু খাবার বেশি বেশি খেলে ওজন কমানো যায় সহজেই।

– যারা বেশি করে টক দই, সামুদ্রিক মাছ, মুরগীর মাংস এবং বাদাম খেয়ে থাকেন তাদের ওজন কমে সবচাইতে বেশি। এসব খাবার যতো বেশি খাওয়া হয় তত বেশি ওজন কমে তাদের!

– লো-ফ্যাট এবং ফুল-ফ্যাট দুধ এবং অন্যান্য ডেইরি খাবার খাওয়ার ফলে ওজন তেমন কোনো তারতম্য দেখা যায় না।

– যারা বেশি বেশি লাল মাংস এবং প্রক্রিয়াজাত মাংস খেয়ে থাকেন তাদের ওজন বাড়ে দ্রুত। বিশেষ করে এই মাংসের সাথে রিফাইন্ড ময়দার খাবার খাওয়া হলে ওজন বাড়ে বেশি।

– তবে মাংসের সাথে কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্সের খাবার যেমন সবজি খাওয়া হলে ওজন কমানো সহজ হয়।

– ডিম এবং পনির জাতীয় খাবারের ক্ষেত্রেও মাংসের মতো একই ঘটনা ঘটতে দেখা যায়। এগুলোর সাথে বেশি গ্লাইসেমিক ইনডেক্সের খাবার খেলে ওজন বাড়ে। আর কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্সের খাবার খেলে ওজন কমে।

গবেষকেরা এটাই দেখেন, যে ওজন কমানোর জন্য দৈনিক খাবারে রাখতে হবে অনেকটা প্রোটিন। যেমন মাছ, বাদাম এবং টক দই। রিফাইন্ড ময়দা, স্টার্চ এবং চিনি এড়িয়ে চলাটাও শরীরের জন্য এক্ষেত্রে ভালো। লাল মাংসের বদলে অন্যান্য প্রোটিন যেমন ডিম এবং পনির খাওয়াটাও উপকারে আসে। এই ধরণের খাদ্যভ্যাস তৈরি করলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে সারা বছর।

মূল: Study: People Who Eat More of These Foods Lose the Most Weight, POPSUGAR

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top