এই “স্বাস্থ্যকর” জিনিসটি আপনি বেশি খেয়ে ফেলছেন না তো?

স্বাস্থ্যকর বলেই সবার কাছে গ্রিন টি-এর সুনাম। বিশেষ করে ওজন কমানোর ক্ষেত্রে। কিন্তু কোনো কিছুই অতিরিক্ত ভালো না। গ্রিন টিও যদি তেমনি বেশি পান করে ফেলেন, তাহলে কী কোনো ক্ষতি হতে পারে?

গ্রিন টি যেমন মেটাবলিজম বাড়ায় তেমনি সাধারণ ঠাণ্ডা-কাশি সারাতেও কাজ করে। এক কথায় অনেকেই বিশ্বাস করেন গ্রিন টি পান করলে অনেক রকম রোগ সেরে যায়। কিন্তু এক কাপ গ্রিন টি পান করেই কি এত রোগের সমাধান সম্ভব? সাবধান, উৎসাহের আতিশয্যে আবার বেশি পান করে ফেলবেন না যেন।

দিন এক থেকে দুই কাপ গ্রিন টি পান করা মানে আপনি ঠিক রাস্তায় আছেন। প্রতিদিন চায়ের কাপের দুই-তিন কাপ গ্রিন টি পান করাটা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি বলে রায় দেন গবেষকেরা। কিন্তু দিনে পাঁচ কাপ পর্যন্ত পান করাটা পাকস্থলির ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। একটি গবেষণায় দেখা যায় দিনে সাত কাপ পর্যন্ত গ্রিন টি পান করলে মেটাবলিজম ভালো হয় এবং ওজন কমে। তবে এই গবেষণা মানুষের ওপর করে দেখা হয়নি এখনো।

এ ছাড়া আরও কিছু মেডিকাল স্টাডি থেকে দেখা যায়, প্রতিদিন গ্রিন টি পান করলে উপকার পাওয়া যায়। তবে এর সীমা হলো দিনে দশ কাপ। আপনি যদি সহজেই ক্যাফেইনে কাবু হয়ে যান, আপনার যদি অনিদ্রা জাতীয় সমস্যা থাকে তাহলে দশ কাপ তো দুরের কথা, আরও কম পান করা উচিৎ গ্রিন টি।

গ্রিন টি অতিরিক্ত পানের কিছু খারাপ দিক আছে। গ্রিন এবং ব্ল্যাক টি দুইয়ের মাঝেই থাকে ট্যানিন। এগুলো শরীরে ফলিক এসিড গ্রহণে বাধা দেয়। আপনি যদি গর্ভবতি হয়ে থাকেন তবে অবশ্যই দিনে দুই কাপের বেশি গ্রিন টি পান করবেন না। একেবারেই যদি পান না করেন তাহলেই ভালো, ঝুঁকি থাকবে না কোনো। এছাড়াও খাবারের সাথে ঠাণ্ডা গ্রিন টি পান করেন অনেকে। তা করলে খাবারের আয়রন গ্রহণ করতে সমস্যা হয় শরীরের। বরং খাবার ছাড়া, আলাদা করে গ্রিন টি পানের চেষ্টা করুন।

তথ্যসুত্র:

Here’s How Much Green Tea Is Safe to Drink, PopSugar

Is It Possible to Drink Too Much Green Tea?, news.health.com

GREEN TEA, WebMD

ফটো ক্রেডিট: www.medicaldaily.com

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top