থাইরয়েড সমস্যা প্রতিকারের সাধারণ উপায়

থাইরয়েড একটি ছোট্ট গ্ল্যান্ড যা আমাদের গলার মাঝামাঝি ও নিচের অংশে থাকে। এই অত্যন্ত গুরুত্ব পূর্ণ  গ্রন্থি থেকে থাইরক্সিন নামের হরমোন নিঃসৃত হয়। এই হরমোন শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, হার্টের গতি নিয়ন্ত্রণ করে এবং বিপাক ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে। শিশুদের ক্ষেত্রে এই হরমোন তাঁদের  দেহের বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করে। বিভিন্ন কারণে থাইরয়েড গ্ল্যান্ড এর সমস্যা হতে পারে। যেমন-

–      আয়োডিন ও সেলেনিয়াম এর ঘাতটি

–      খাদ্য এর অ্যালার্জি

–      রেডিয়েশন ও ভারী ধাতুর বিষক্রিয়া

–      হরমোনের অসামঞ্জস্যতা ইত্যাদি।

থাইরয়েড-এর সমস্যা দুই ধরণের হয়, হাইপো থাইরয়েডিজম ও হাইপার থাইরয়েডিজম। যখন থাইরয়েড গ্ল্যান্ড থেকে হরমোন নিঃসরণ কম হয় তখন তাকে হাইপো থাইরয়েডিজম বলে। এটা হলে- ক্লান্ত লাগা, বিষণ্ণতা, ভুলে যাওয়া এবং ওজন বৃদ্ধি পাওয়া এই সমস্যা গুলো হয়ে থাকে।

আর যখন হরমোন নিঃসরণ অনেক বেশি হয় তখন তাকে হাইপার থাইরয়েডিজম বলে। এটা হলে- বিরক্ত লাগা, নার্ভাসনেস, মাংসপেশির দুর্বলতা, চোখের সমস্যা, ঘুমের সমস্যা ও অস্বাভাবিক ওজন কমে যাওয়া এই সমস্যাগুলো হয়ে থাকে।

থাইরয়েড এর এই সমস্যা গুলো থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য কিছু প্রাকৃতিক উপায় অবলম্বন করা যায়। যেমন –

১। বেশি করে ভিটামিন এ গ্রহণ করতে হবে

থাইরয়েড এর সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার সবচেয়ে ভালো উপায় হল বেশি বেশি ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া।  এর জন্য প্রচুর গাজর, হলুদ ও গাঢ় সবুজ শাকসবজি ও ডিম খেতে হবে।

২।  নারিকেল তেল

নারিকেল তেলে যে ফ্যাটি এসিড আছে তা থাইরয়েড এর কাজকে ত্বরান্বিত করে, এছাড়াও বিপাকে সহায়তা করে ও এনার্জি প্রদান করে। এটা শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি করে যা হাইপো থাইরয়েডিজম এর রোগী দের জন্য ভালো।

–      রান্নার জন্য এক্সট্রা ভার্জিন অর্গানিক নারিকেল তেল ব্যবহার করুন।

–      সকালের নাস্তার সময় দুধের সাথে ২ চামচ নারিকেল তেল মিশিয়ে খেতে পারেন।

৩। আপেল সাইডার ভিনেগার

থাইরয়েড-এর সমস্যায় আপেল সিডার ভিনেগার অনেক কার্যকরী। এটা এসিড ও ক্ষারের ভারসাম্য রক্ষা করে, শরীর কে বিষ মুক্ত করে, ওজন কমতে সাহায্য করে এবং হরমোনের নিঃসরণে সহায়তা করে।

–      ১ গ্লাস উষ্ণ পানিতে ২ চামচ অর্গানিক আপেল সাইডার ভিনেগার মিশান

–      এর সাথে কিছুটা মধু যোগ করুন

–      এই মিশ্রণটি প্রতিদিন খাওয়ার চেষ্টা করুন

টিপস:

  • আপনার খাদ্য তালিকায় বাদাম, শিমের বীজ, পনির সহ প্রচুর ফল ও শাকসবজি রাখুন
  • প্রতিদিন কিছু সময় ব্যায়াম করুন বা আপনার শারীরিক কার্যক্রম বাড়িয়ে দিন।এর ফলে শরীরে এমনকি থাইরয়েড গ্রন্থিতে অক্সিজেন সরবরাহ বৃদ্ধি পায়
  • আয়োডিন সমৃদ্ধ খাবার যেমন- পেঁয়াজ, ভুট্টা, আনারস, টমেটো, রসূন, বাঁধাকপি ও স্ট্রবেরি খান
  • অনেক পানি পান করুন
  •  হাই ক্যালরি যুক্ত খাবার বর্জন করুন। ভাঁজা  পোড়া খাবার কম খান
  • বেশি করে খনিজ লবণ সমৃদ্ধ খাবার খান
  • ভিটামিন ডি গ্রহণ করুন
  • কার্বোহাইড্রেট কম গ্রহণ করুন

 

যদি থাইরয়েড গ্রন্থিতে ব্যাথা হয় ও ফুলে যায় তাহলে দ্রুত ডাক্তার দেখান।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top