ফুড অ্যালার্জি দূর করুন ৪টি ঘরোয়া উপায়ে

অনেকই আছেন যাদের কিছু খাবার খেলে অ্যালার্জি হয়। এই ধরণের অ্যালার্জিকে সাধারণত ফুড অ্যালার্জি বলে। বিশেষ কোন খাবার যা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার সাথে অসহনশীল। আর এই খাবারগুলো খেলে শরীরে চুলকানি, লাল হয়ে যাওয়া, ফুলে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যা দেখা যায়। ছোট বড় সবার হতে পারে ফুড অ্যালার্জি।

যে খাবারগুলোর কারণে ফুড অ্যালার্জি হতে পারে

  • চীনাবাদাম
  • ডিম
  • দুধ
  • সয়া
  • সামুদ্রিক খাবার
  • বিভিন্ন কেমিক্যাল দেওয়া খাদ্য
  • শাকজাতীয় খাবার
  • চিংড়ি ইত্যাদি

ফুড অ্যালার্জির লক্ষণ

– হাত-পা চুলকানি

– চোখ চুলকানো, চোখ দিয়ে পানি পড়া

– অনেক সময় ঠোঁট, মুখ ফুলে যায়

– মাথা ব্যথা, মাথা ঘোরা

– হাঁচি, কাশি, নাক দিয়ে পানি পড়া

– বমি বমি ভাব, পেটে ব্যথা ইত্যাদি।

ঘরোয়া কিছু উপায়ে ফুড অ্যালার্জি দূর করা সম্ভব। আসুন জেনে নেওয়া যাক উপায়গুলো।

১। আপেল সাইডার ভিনেগার

এক গ্লাস গরম পানিতে এক টেবিল চামচ আপেল সাইডার ভিনেগার, এক চা চামচ মধু এবং লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এটি দিনে ২ থেকে ৩ বার পান করুন। আপেল সাইডার ভিনেগারে অ্যান্টিহিস্টামিন এবং অন্যান্য উপাদান বিভিন্ন ফুড অ্যালার্জি দূর করে থাকে।

২। আদা

দিনে ২ থেকে ৩ কাপ আদা চা পান করুন। আদার অ্যান্টিইনফ্লামেটরি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান আছে যা বমি বমি ভাব, ডায়রিয়া, চুলকানি দূর করে দেয়। দুই কাপ পানিতে অল্প কিছু আদা কুচি দিন। এটি ১০ মিনিট জ্বাল দিন। এটি পান করুন। এছাড়া এক চাচামচ আদার রস এবং মধু মিশিয়ে পান করতে পারেন।

৩। গাজর এবং শসার রস

গাজর এবং শসার রস একসাথে মিশিয়ে পান করুন। গাজর এবং শসার অ্যান্টিঅ্যালার্জিক উপাদান ত্বকের চুলকানি, লাল লাল ভাব দূর করে থাকে।

৪। গ্রীণ টি

সবুজ চায়ের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি ইনফ্লামেন্টরী উপাদান ফুড অ্যালার্জি দূর করে দিয়ে থাকে। সবুজ চায়ের সাথে মধু এবং লেবু মিশিয়ে নিতে পারেন স্বাদ বৃদ্ধির জন্য। দিনে ৩ থেকে ৪ কাপ গ্রিণ টি পান করুন।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top