গেটে বাত থাকলে কী দুধ ও ডিম খাওয়া যায়?

দুধ এবং ডিম এমন দুটি খাদ্য যা গেঁটে বাতের সমস্যাকে বাড়িয়ে দিতে পারে বলে মনে করা হয়, আসলে এরা আপনার জন্য উপকারী। আমরা যখনই গেঁটে বাতের প্রসঙ্গে কথা বলি তখন ইউরিক এসিড এবং প্রোটিন এই শব্দগুলো শুনে থাকি। গেঁটে বাতের সমস্যায় ভুগছেন যারা তারা  সহস্রবার এটা শুনেছেন যে, কেন তাদের প্রোটিন দূরে রাখা প্রয়োজন এবং কীভাবে প্রোটিন তাদের ক্ষতির কারণ হতে পারে। এটি খুবই হতাশাজনক যখন আপনি শুনবেন যে, সকালের নাশতায় ডিম খাওয়া যাবেনা এবং দুধ খাওয়া থেকেও বিরত থাকতে হবে। গেঁটে বাতের রোগীদের খাবারের সন্তুষ্টি পাওয়া খুবই কঠিন হয়ে পড়ে। দুধ এবং ডিম তৃপ্তিদায়ক খাবার যা প্রোটিনের উৎস, গেটে বাতের রোগীদের এই দুটি খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকতে বলা হয়।

আমাদের যা জানা প্রয়োজন তা হচ্ছে প্রোটিন মূল সমস্যা নয় মূল সমস্যা হছে পিউরিন নামক উপাদান যা গেঁটে বাতের সমস্যাকে বাড়িয়ে দেয়। মুম্বাই এর গীতা শেনয়’স নিউট্রিশন এন্ড অয়েলনেস ক্লিনিক এর ডায়েটেশিয়ান এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। চলুন জেনে নিই এই বিশেষজ্ঞের মতামত।

ডিম

আমাদের সবচেয়ে বড় ভুল হচ্ছে আমরা সব প্রোটিনকে একই ধরনের মনে করি। সকল ধরনের প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারেই উচ্চমাত্রার প্রোটিন থাকেনা। ডায়েটেশিয়ান শেনয় বলেন, শাকসবজি এবং সিরিয়ালে থাকা প্রোটিনকে গেঁটে বাতের জন্য খারাপ বলে বিবেচনা করা হয়না। ডিমে খুব কম মাত্রার পিউরিন থাকে, তাই গেঁটে বাতে আক্রান্তদের জন্য ডিম আদর্শ খাবার হতে পারে। মাছ সীমিত পরিমাণে গ্রহণ করতে পারেন। ডিম ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিডের ভালো উৎস। এছাড়াও ডিমে অত্যাবশ্যকীয় বি ভিটামিন যেমন – কোলাইন, বায়োটিন এবং ফলিক এসিড থাকে।

দুধ

গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে, দুধ রক্তের ইউরিক এসিডের মাত্রা কমানোর জন্য ভালো, গেঁটে বাতের তীব্রতা কমে। এছাড়াও দুধে পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম থাকে যা হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধিতে এবং ইউরিক এসিডকে দূর করতে সাহায্য করে।

বেশীরভাগ মাংসজাতীয় খাবার যেমন- মুরগী, গরু ইত্যাদি নিষিদ্ধ, গেঁটে বাতে আক্রান্তদের জন্য প্রোটিন গ্রহণ করতে হয় খুব কম পরিমাণে। এই ক্ষতি পুষিয়ে নেয়ার জন্য গেঁটে বাতে আক্রান্তদের দুধ এবং ডিম খাওয়া প্রয়োজন।

দৈনিক কয়টি ডিম এবং কী পরিমাণ দুধ পান করতে হবে?

ডায়েটেশিয়ান শেনয় এর মতে, দৈনিক ৪০০ মিলিলিটার দুধ গ্রহণ করতে পারেন। তিনি বলেন, প্রতিদিন ১ টি ডিম গ্রহণ করতে পারেন। তিনি এটাও বলেন যে, গেঁটে বাতে আক্রান্তরা আস্ত ডিমের পরিবর্তে ডিমের সাদা অংশ গ্রহণ করতে পারেন।  

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top