ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায় চা!

আমরা সাধারণত সকালের নাস্তা বা দুপুরের খাবারের পর পরই চা বা কফি পান করি। অনেকেরই এটা প্রতিদিনের অভ্যাস। কেননা চা, কফি পান করার অনেক উপকারিতা রয়েছে। তবে এই অভ্যাস স্বাস্থ্যসম্মত নয়।

সঠিক সময়ে চা না পান করলে তা শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ঘটায়। উপকারিতার পাশাপাশি শরীরে অন্য খাবার গুলো থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি পাওয়া থেকে বঞ্চিত এবং হজমে বাঁধা সৃষ্টি করতে পারে। খাবার খাওয়ার আগে চা পান করলেও হজমে বাঁধাগ্রস্থ হয় যাতে খাবার থেকে প্রয়াজনীয় পুষ্টি পাওয়া যায় না। চায়ের অপকারিতা নিয়ে আজ আমাদের এই বিবৃতি-

১। ঘুমের এবং প্রস্রাবের সমস্যা: অতিরিক্ত চা পান করলে এর মাঝে থাকা ক্যাফেইন শরীরের অনেক ক্ষতি করে। এতে বারবার প্রস্রাবের সমস্যা হবার পাশাপাশি আপনার স্বাভাবিক ঘুমেও ঘাটতি বয়ে আনবে।

২। কোষ্ঠকাঠিন্য: থিওফিলাইন নামের একটি রাসায়নিক পদার্থ চায়ের মাঝে থাকে। যা হজমের সময় ডিহাইড্রটিং প্রভাব সৃষ্টি করতে পারে, যার ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য হয়। অনেকে বিশ্বাস করেন যে, সকালে চা খাওয়ার ফলে আমাদের মাথার ভার হবার সমস্যা দূর হয়, কিন্তু অতিরিক্ত পরিমাণে চা পান করলে কোষ্ঠকাঠিন্য হবার সমস্যা প্রবল।

৩। উদ্বেগ এবং অস্থিরতা: মানসিক প্রশান্তি বৃদ্ধিকারী ড্রাগ হিসেবে ক্যাফেইন সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় এবং এটা আমাদের শরীরে ভাল কিছু করার পাশাপাশি আমাদের শরীরে খারাপ প্রভাবও বয়ে আনে। অত্যধিক চা খেলে ঘুম ঘুম ভাব, বেহুঁশতা, উদ্বেগ এবং হার্ট বিট হার বৃদ্ধি হতে পারে।

৪। গর্ভপাতের সম্ভাবনা: গর্ভবতী নারীদের চা পান করা উচিৎ নয়। কারণ ক্যাফেইন ফেটুসের ক্ষতি করতে পারে। এতে করে মাতৃগর্ভে শিশু সঠিকভাবে বেড়ে উঠতে পারে না এবং গর্ভপাতের সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

৫। প্রোস্টেট ক্যানসার: অতিরিক্ত চা পান করার এটি সবথেকে খারাপ দিক। এক গবেষণায় দেখা যায়, যে সকল পুরুষ প্রচুর পরিমাণে চা পান করেন, তাদের প্রোস্টেট ক্যানসার হবার ঝুঁকি প্রবল।-সূত্রঃ টাইম্‌স অফ ইন্ডিয়া।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top