ব্লু টি’ শারীরিক সমস্যা সমাধানের এক যুগান্তকারী আবিস্কার

যে কোনও শারীরিক সমস্যারই এখন প্রায় এক কথায় সমাধান হয়ে দাঁড়িয়েছে গ্রিন টি। গত এক দশকে এতটাই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে গ্রিন টি। কিন্তু সে ভাবে এখনও কেউ জানেই না ব্লু টি সম্পর্কে। অথচ গ্রিন টি-র মতোই স্বাস্থ্যকর ব্লু টি।

নীল কড়াইশুঁটির ফুল, ক্লিটোরিয়া টারনেটি থেকে তৈরি হয় ব্লু টি। যাকে এশিয়ান পিজিয়ন উইঙ্গস বা ব্লুবেলভাইন বলা হয়ে থাকে। মূলত এশিয়াতেই চাষ হয় এই চা-এর। ভারতীয়রা অবশ্য নীল কড়াইশুঁটির ফুলকে অপরাজিতা ফুল হিসেবেই চেনে। কষ্টা স্বাদ ও নীল রঙের জন্য অনেকেই এই চা পছন্দ না করলেও এই চা-এর রয়েছে প্রচুর উপকারিতা।

রূপচর্চা: ব্লু টি-র অ্যান্টি-গ্লাইসেটিন গুণের জন্য এটা ত্বকের পক্ষে খুব ভাল। এর মধ্যে থাকা ফ্লাভনয়েড ত্বকে কোলাজেন তৈরি করে ইলাসটিসিটি বাড়ায়। বলিরেখা পড়তে দেয় না। আবার অ্যান্থোসায়ানিন থাকায় চুল পড়ার সমস্যাতেও কাজ করে ব্লু টি। স্ক্যাল্পে রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে হেয়ার ফলিকলের বৃদ্ধি ঘটায়।

ডিটক্স: গ্রিন টি-র মতোই ব্লু টি ভাল অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। ডাইইউরেটিক হওয়ার কারণে ইউরিনেশনে সাহায্য করে। আবার এর মধ্যে থাকা সাইক্লোটাইড-এর অ্যান্টি এইচআইভি, অ্যান্টি-টিউমার গুণ রয়েছে।

হজম: ব্লু টি লিভারে বাইল তৈরিতে সাহায্য করে। এর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট গুণ হজমে সাহায্য করে। বমি ভাব কাটানোর কাজেও আসে ব্লু টি।

ব্রেইন বুস্টার: ব্লু টি মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। স্মৃতিশক্তি উন্নত করে। কারণ ব্লু টি মস্তিষ্কে অ্যাসিটাইলকোলিনের পরিমাণ বাড়াতে সাহায্য করে। যার অ্যান্টিপাইরেটিক গুণ জ্বর সারাতে, উৎকণ্ঠা কমাতে ও অবসাদ কাটাতে সাহায্য করে।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top