নিজেকে ভালোবাসতে জীবনে ছোট্ট কিছু পরিবর্তন আনুন

অনেকেই আছেন যারা নিজেকে নিয়ে একেবারেই সুখী নন। সবসময়ই যে কোনো ব্যাপারে নিজেকে দোষারোপ করার মতো মানুষের সংখ্যাই অনেক বেশী। কিন্তু একটি ব্যাপার জানেন কি? আপনি যদি নিজেকে নিয়ে সুখী না হন, খুশি থাকতে না পারেন পৃথিবীর কোনো কিছুতেই নিজেকে খুশি রাখতে পারবেন না এবং কখনোই সুখটা খুঁজে পাবেন না।

এমনকি অন্য আরেকজন মানুষের ভালোবাসাও আপনি পাবেন না, যতক্ষণ না আপনি নিজেকে ভালোবাসতে পারছেন। তাই নিজেকে প্রথমে ভালোবাসতে শিখুন। দেখবেন সব কিছুতেই সুখ খুঁজে পাচ্ছেন। আর এই কাজটি করতে পারেন জীবনে খুবই ছোট্ট কিছু পরিবর্তন এনে।

 

১) নিজের দেহটাকে ভালোবাসতে শিখুন-
নিজের শারীরিক সৌন্দর্য নিয়ে মানুষের আফসোসের সীমা নেই। মানুষের মনের কোনো অবয়ব নেই, আপনার যে অবয়বের মধ্যে মনটি রাখা আছে সেই দেহকে প্রথমে ভালোবাসতে শিখুন। পৃথিবীতে যতো মানুষ রয়েছে তারা তাদের মতো হতো না যদি না তাদের শারীরিক বৈশিষ্ট্য তাদের মতো হতো। আপনি, আপনি হতেন না যদি না আপনার শারীরিক গঠন এমনটি হতো। নিজেকে নিয়ে গর্ব করতে শিখুন।

২) নিজের প্রশংসা করুন-
যখন একটি ভুল কাজ করেন তখন মুখ দিয়ে বলেই ফেলেন, ‘আমি একটা গাধা’, অনেকে নিজেকে গালাগালিও করে থাকেন। কিন্তু একটি ভালো কাজ করে নিজেই নিজের প্রশংসা করেছেন কখনো? এই কাজটি অনেকেই করেন না। আজ থেকে করা শুরু করুন। এতে নিজের প্রতি ভালোবাসা বাড়বে।

৩) জীবন থেকে ক্ষতিকর বিষয় সব সরিয়ে ফেলুন-
নিজেকে ভালোবাসতে শেখার এই ধাপটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আপনি নিজেকে তখনই পুরোপুরি ভালোবাসতে শিখতে পারবেন যখন জীবনের জন্য ক্ষতিকর, আপনার জন্য ক্ষতিকর সকল বিষয় থেকে নিজেকে সরিয়ে আনতে পারবেন। একটি খারাপ সম্পর্ক থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয়া, অযথা অফিস পলিটিক্সে না থেকে নিজের জন্য যেটা ভালো তা করা, ইত্যাদি কাজের মাধ্যমে অনেকটা মানসিক শান্তিতে থাকতে পারবেন আপনি। নিজের প্রতি সম্মানও বাড়বে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারার কারণে।

৪) নিজের অনুভূতি ও আবেগ চেপে না রাখা-
আপনি যতোই এই বিষয়গুলো নিজের মধ্যে চেপে রাখতে যাবেন ততোই নিজের চোখে দুর্বল হয়ে পড়তে থাকবেন। প্রকাশ করুন, নিজেকে প্রকাশ করার মধ্যেই মনে সাহসের সঞ্চয় হয়। আর তা থেকেই নিজেকে ভালোবাসার আরেকটি পথ তৈরি হয়ে যায়।

৫) আপনি যেমন তেমনই থাকুন-
কোনো কিছুর জন্য এবং কারো চাপে পড়ে নিজেকে পরিবর্তন করতে যাবেন না। এতে নিজের চোখেই সম্মান হারিয়ে ফেলবেন। জীবনের জন্য যে পরিবর্তন আসা দরকার তা আপনাআপনিই হবে। জোর করে ইচ্ছের বাইরে নিজেকে দিয়ে কিছু করাবেন না। এতেই নিজেকে ভালোবাসতে হয় কীভাবে তা শিখতে পারবেন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top