সহকর্মীদের সাথে যে কাজগুলো করতে হয় না ভুলেও!

নতুন চাকরি মানে নতুন জগত। আর নতুন জগতে নতুন নতুন মানুষের সাথে মিলেমিশে কাজ করতে হয়। নতুন জগতে নানাবিধ সমস্যা হওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু এই জগতে মানিয়ে নেওয়ার জন্য আপনাকে করতে হবে বাড়তি কিছু কাজ, যা কর্মক্ষেত্রে আপনাকে সফল হতে সাহায্য করবে। জেনে নিন কলিগের সাথে কোন আচরণগুলো করা উচিত নয়। পরামর্শ দিয়েছেন সেভ দ্যা চিলড্রেনের ম্যানেজার পোস্টে কর্মরত রবিউল আলম।

মেয়ে কলিগদের কখনও অসম্মান করবেন না:

রবিউল আলম বলেন, “বর্তমান সময়ে পুরুষ যা পারে, নারী তার সমান পারে, কোন কোন ক্ষেত্রে পুরুষের চেয়ে আরও ভালো পারে। তাই মেয়ে কলিগদের ছোট করে দেখা হীনমন্যতার পরিচায়ক। অফিসে এমন কোন কাজ করবেন না বা এমন কোন কথা বলবেন না যা মেয়ে কলিগদের সম্মানে আঘাত করবে। বরং সত্যিকারের পুরুষেরা মেয়েদের সম্মান দিতে কার্পন্য করে না।”

কাউকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাববেন না :

একটা অফিসে নানা ধরনের মানুষ একত্রিত হয়। এখানে এক এক জনের মানসিকতা এক এক রকম। কেউ কেউ হয়ত কর্মক্ষেত্রে দ্রুত উন্নতি করবে, আবার কারো হয়ত একটু সময় লাগবে। এ প্রসঙ্গে রবিউল আলম বলেন, “আপনার কলিগ যদি আপনার থেকে এগিয়ে যায় তবে এসব নিয়ে ঈর্ষাকাতর হওয়া চলবে না। বরং মনের মধ্যে সুস্থ প্রতিযোগিতা রাখুন। আপানার কলিগের কাছ থেকে শিখুন, কীভাবে দ্রুত উন্নতি করতে হবে।”

কলিগের গোপন কথা অন্য কাউকে বলবেন না :

রবিউল আলম বলেন, “কলিগ ধীরে ধীরে আপনার বন্ধু হয়ে উঠতে পারে। আর একজন বন্ধু আর একজন বন্ধুকে নানা কথা শেয়ার করতে পারে। সেগুলো হতে পারে ব্যক্তিগত, সেগুলো হতে পারে অফিসের কোন বিষয়ে। আপনি একজন বন্ধু হয়ে মনযোগ দিয়ে তার কথা শুনুন। কিন্তু তার গোপন এই কথাগুলো নিজের মধ্যেই রাখবেন, ভুলেও অফিসের অন্য কারো সাথে শেয়ার করবেন না। এতে পরবর্তীতে আপনাদের মধ্যে তীব্র ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি হতে পারে।”

কলিগদের কোন ব্যক্তিগত জিনিসে হাত দেবেন না:

রবিউল আলম সতর্ক করে বলেন, “কলিগের অনুমতি ছাড়া তার ডেস্ক, কম্পিউটার, প্রয়োজনীয় ফাইলসহ অন্যান্য জিনিস ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। এগুলো কলিগের মধ্যে দ্বন্দ্বকে বাড়িয়ে দিতে পারে।”

কোন কাজ কলিগের উপর চাপিয়ে দেবেন না :

কলিগের সাথে হৃদ্যতাকে সুযোগ হিসাবে নিয়ে কখনও তার উপর কোন কাজ চাপিয়ে দেবেন না। বিশেষ করে অফিসের কাজগুলোর ব্যাপারে বেশি যত্নবান হতে হবে। রবিউল আলম বলেন, “অফিস থেকে আপনার উপর অর্পিত দায়িত্ব পালনে পিছ পা হবেন না। কাজ করতে কোন সমস্যা হলে টিম মেম্বার বা বসের সাহায্য নিন। তবে কখনই কলিগের ঘাড়ে কিছু চাপাবেন না।”

কোন অবস্থাতেই কলহে লিপ্ত হবেন না:

রবিউল আলম সবশেষে যোগ করেন, “কলিগের অনেক আচরণ আপনার খারাপ লাগতে পারে। তার অনেক কাজ আপনাকে আঘাত করতে পারে। তবে সেসব নিয়ে কখনই কলহে লিপ্ত হওয়া চলবে না। খুঁজে বের করতে হবে অন্য সমাধান। কলিগের কোন আচরণ খারাপ লাগলে তাকে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করুন। তিনি আপনার বিরুদ্ধে কিছু বললে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করুন। মনে রাখবেন এটা প্রোফেশনাল জগত এখানে আবেগ বা ইমোশন দিয়ে কিছু বিচার করাটা বোকামি।”

পরামর্শ দিয়েছেন-
রবিউল আলম,
ম্যানেজার,
সেভ দ্যা চিলড্রেন।

ফটো ক্রেডিট: www. southmountain.com

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top