কেমন হবে পড়ার ঘর

বসার ঘর বা শোবার ঘরের পরিপাটি নিয়ে কতোই না চিন্তা, কতো না আয়োজন। কোনো দ্বিধা ছাড়াই খরচও করি বেশ। কোন আসবাব কোথায় থাকবে, তার রঙ কি হবে, ঘরে কি কি থাকলে উন্নত রুচির প্রকাশ পাবে তা নিয়ে ভাবনার শেষ নেই। তবে বাড়ির অন্যান্য ঘরের চেয়েও বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিৎ পড়ার ঘরকে। আপনার পড়ার প্রতি একান্ত মনোনিবেশ করার জন্য প্রয়োজন শান্ত মনোরম পরিবেশ। ক্লাসের পড়া হোক আর প্রীতির কারণে বই পড়া হোক, সবটার জন্য চাই মনের মতো পড়ার ঘর।

পড়ার ঘর বড় না ছোট হবে, সেটি নির্ভর করছে আপনার নিজস্ব বাড়ি না ফ্ল্যাট বাড়ি তার ওপর। পড়ার ঘরের আসবাবপত্র হবে অন্যসব ঘর থেকে কিছুটা ভিন্ন। কারণ এখানে আপনার একই সঙ্গে প্রয়োজন মনোযোগ এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশ। চেয়ার, টেবিল, ল্যাম্প, ডিভান এবং ক্যাবিনেটের মতো ছোট আসবাব থাকতে পারে এ ঘরটিতে।

বই বা অন্যান্য জরুরি খাতাপত্র রাখার জন্য শেলফ বা তাকগুলো এমনভাবে বসাতে হবে যাতে তা দাঁড়িয়ে বা বসে হাতের নাগালে সবকিছু পাওয়া যায়। বিশ্রাম নেওয়ার জন্য বা শুয়ে পড়ার জন্য আপনার ঘরে রাখতে পারেন একটি ডিভান। খেয়াল রাখতে হবে চেয়ার এবং টেবিলটি যেন আরামদায়ক হয়, তাহলে কাজে মনোযোগ দিতে সুবিধা হবে। আপনার কম্পিউটারটি রাখার জন্য একটি নির্দিষ্ট জায়গা ঠিক করুন। একটি ছোট সাইড টেবিল রাখতে পারেন চা, কফি বা টুকটাক জিনিস রাখার জন্য।

ঘরের দেয়ালে ঝোলাতে পারেন আপনার পছন্দের একটি ছবি, মানচিত্র, অমৃত বাণী সম্বলিত পোস্টার। পড়ার ফাঁকে প্রয়োজনীয় জায়গা দেখে নিলেন মানচিত্র থেকে। অবসরে অমৃত বাণীর মর্ম উদ্ধারের কাজটিও চলতে পারে। আবার প্রকৃতি বা পছন্দের ছবি দেখে বুনতে পারেন কল্পনার জাল।

ঘরের এক কোণে রাখতে পারেন ছোট টবে ফুল গাছ। টেবিলের ওপরেও শোভা পেতে পারে ছোট্ট মানিপ্লান্ট বা পাতা বাহারের গাছ। এগুলো আপনার চোখে এনে দেবে প্রশান্তির ছোঁয়া। ক্ষণিকে মন মিশে যাবে প্রকৃতির কোলে। সজীব সুন্দর মনেও থাকবে পড়ার উপযোগী আবহ।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top