সফলতার স্বাদ পেতে জীবন থেকে বাদ দিন এই ক্ষতিকর আবেগগুলো

সফল ও সুখী জীবন সকলেরই কাম্য। কিন্তু সফলতা পেতে বেশ কাঠখড়ই পোড়াতে হয়। তারপরও অনেকের হাতে ধরা দেয় সলফতা, জীবনে আসে সুখ। আবার অনেকেই বঞ্চিত হন এই স্বাদ থেকে। কিন্তু কখনো কি ভেবেছেন, কেন সেই মানুষটি সফল, কেন আপনি নন? জীবনে সুখ পেতে এবং সফলতা আনতে হলে কিছু ব্যাপার বাদ দিতে হয়। আর এই বাদ দেয়ার তালিকায় প্রথমেই পড়ে আপনার নিজের ভেতরের কিছু ক্ষতিকর আবেগ। এই আবেগগুলো বাদ দিন আজ থেকেই। তবেই জীবনটাকে সাজাতে পারবেন সুখী ও সুন্দর করে, আনতে পারবেন সফলতা।

১) উদ্বেগ

দুশ্চিন্তা ও উদ্বেগ খুবই ক্ষতিকর ধরণের আবেগ। যখনই আপনার কোনো একটি ব্যাপার নিয়ে উদ্বেগ কাজ করবে, মনে রাখবেন তখনই আপনি নিজেকে একটি স্থানে আটকে ফেলছেন। কারণ এভাবে করলে কী হবে, সেভাবে হলে কী হবে, পরবর্তীতে কী হবে এই ধরণের এই চিন্তাগুলো যখন মাথায় কাজ করতে থাকে তখন কোনো কাজ করার আগেই তা থামিয়ে দেয়ার মনোভাব তৈরি হয়ে যায় ভবিষ্যতের কথা ভেবে। আর এই উদ্বেগ মানসিক শান্তিও নষ্ট করে অশান্তি ডেকে আনে। তাই উদ্বেগ ও দুশ্চিন্তা ধরণের আবেগটাকে দূর করে দিন প্রথমেই।

২) দুঃখ

দুঃখ পেয়ে কষ্ট পেয়ে আসলেই কি কোনো লাভ আছে বলে মনে করেন আপনি? নিজেই ভাবুন তো একটি বার। আপনি যখনই কোনো ব্যাপারে দুঃখ পাবেন তখন মানসিক কষ্টটির প্রভাব আপনার কাজের উপরেও পড়বে। মনের শান্তি নষ্টের পাশাপাশি কাজের ক্ষতিও আপনার এই আবেগটির কারণে। তাই দুঃখ পেলেও তা ধরে নিয়ে বসে বসে কষ্ট পেতে থাকবেন না কখনোই। দুঃখ পাওয়ার মতো আবেগটাকে দূরে সরিয়ে ফেলুন নিজের ভালোর জন্যই।

৩) রাগ

কথায় রয়েছে, ‘রেগে গেলেন, তো হেরে গেলেন’। বিষয়টি আসলেই সত্যি। যখনই আপনার মনে রাগ হওয়ার মতো আবেগ এসে ভর করে তখনই আপনার মস্তিষ্কের স্বাভাবিক ভাবে চিন্তা ভাবনা করার মতো ক্ষমতা লোপ পেয়ে যায়। এবং রাগের মাথায় করা কাজটি পরবর্তীতে ভুল কাজ বলেই প্রমাণিত হয়ে যায়। তাই দয়া করে নিজের কথা চিন্তা করে হলেও রাগ নামক এই ক্ষতিকর আবেগটি বাদ দেয়ার চেষ্টা করুন।

৪) নিজেকে অযোগ্য ভাবা

নিজেকে অযোগ্য ভাবা, নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস না থাকা জীবনে অশান্তির জন্য দায়ী অন্যতম আবেগ। অন্যের সাথে তুলনা করে নিজেকে অযোগ্য মনে করা এবং নিজের প্রতি একেবারেই ভরসা না করার বিষয়টি আপনার সফলতার পথের সবচাইতে বড় বাঁধা। আপনি নিজের প্রতি বিশ্বাস না রাখতে পারলে কাজে সফলতা আনতে পারবেন না কখনোই। তাই নিজেকে ছোট ভাবার এই আবেগটি ঝেড়ে ফেলুন আজই।

সূত্র:powerofpositivity

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top