জনসমক্ষে বা সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে সঙ্গীকে নিয়ে অতিরিক্তি উচ্ছ্বাস!

হঠাৎ করেই চলার পথে কিংবা কোন রেস্তোরাঁয়, শপিং মলে অথবা বন্ধুর মাধ্যমে আপনি এমন কাউকে দেখলেন যে আপনার মনের অজান্তেই তাকে ভাল লেগে গেল। তারপর আলাপ আলোচনা এরপর কীভাবে যেন একে অপরের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে যাওয়া। এই রকম ঘটনা আমাদের সমাজে হরহামেশাই ঘটে থাকে। চলুন তাহলে জেনে নিই কিছু কথা।

সম্পর্কের বয়স হয়তো ৬ মাস বা আরও কম। নতুন প্রেমের উচ্ছ্বাসে হাবুডুবু খাওয়া আপনি একটি মুহূর্তও সঙ্গীর সঙ্গ ছাড়তে রাজি নন। সে উচ্ছ্বাস মাঝে মাঝে এমন পর্যায়ে গিয়ে দাঁড়ায় যে, জনবহুল কোন জায়গায় যেমন বাসে কিংবা কোন রেস্তোরাঁয় সঙ্গীকে জড়িয়ে ধরে রাখা চাই, আবার মাঝে মাঝে আদরও করা চাই। শুধু বাহিরেই, নয় আজকাল প্রেমিক প্রেমিকারা সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে নিজেদের ছবি এতো পরিমাণে দিয়ে থাকেন যে নিজের আলাদা আলাদা ছবি খুঁজে পাওয়াটাই মুশকিল। সবসময় যুগলে অবস্থান করেন তাঁরা।

সমস্যা হল, একজন পার্টনার লোকসমাজে এধরনের আচরণ করলেও, অপরজন তা পছন্দ নাও করতে পারেন। আপনাদের প্রেমের সম্পর্ক যতই গভীর হোক না কেন , পাবলিক প্লেসে তা যেন কখনোই শালীনতার মাত্রা না ছাড়ায়। সঙ্গীকে বোঝান প্রেম মানেই শারীরিক সংস্পর্শ নয়। বরং কোন জায়গায় ঘুরতে গেলে, শপিং করতে গেলে কিংবা কোন রেস্তোরাঁয় খেতে গেলেও রোমান্স অন্য মাত্রা পাবে। রোমান্সের অন্যদিকগুলোও পরখ করে দেখতে পারেন। আবার অনেকেই আছে যারা সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে নিজেদের রোম্যান্টিক ছবি পোস্ট করতে খুব ভালোবাসেন।

আসলে প্রেম-ভালোবাসা পুরোটাই একটি অনুভূতির ব্যাপার। সবসময় এই অনুভূতিগুলোকে যে সবার সামনে তুলে ধরতে হবে এমন কোনও কথা নেই। বরং, নিজেদের মজার সময়গুলো নিজেরাই স্মৃতিতে রাখুন, ক্যামেরাবন্দি করুন। পড়ে কোন এক সময় যখন ছবি গুলো দেখবেন তখন নিজেরাই পরিতৃপ্তি পাবেন। সবসময় জনসম্মুখে সবকিছু তুলে ধরলে সম্পর্কের আসল রসায়নটাই নষ্ট হয়ে যায়। কোনও বিশেষ মুহূর্ত বা অভিজ্ঞতার ছবি যেখানে দু’জন একসাথে আছেন, তা দিতেই পারেন। তবে তার মানে এই না যে রোজকার ডজনখানেক ছবি যার কোন মানেই নেই তা সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে পোস্ট করবেন। নিজের স্বতন্ত্র সত্তার পরিচয়টাও তো সবার জানা চাই। আর কোন ছবি দিতে গেলে অবশ্যই আপনার সঙ্গীর মতামতটা নিয়ে নেবেন। অন্য কোন বন্ধু ও সহকর্মীর সঙ্গে কথাপ্রসঙ্গে সবসময় আপনার পার্টনারের কথা বলবেন না। প্রেমের বাইরেও যে আপনার একটি নিজস্ব জগৎ আছে, সেটা তাহলে বাকিদের কাছে অজানা থেকে যাবে।

আপনারা নিজদের প্রেমকে জনসমক্ষে কতটা তুলে ধরবেন, সেতা একান্তই আপনাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবে সম্পর্কের মূল রসায়নটা কিন্তু নিজেদের মধ্যেই রাখা দরকার।

তথ্যঃ buzzfeed.com, সানন্দা

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top