যে ৩টি অভ্যাস আপনাকে ব্যর্থ করে দিতে যথেষ্ট

সাফল্যের সংজ্ঞা হয়তো একেকজনের কাছে একেক রকম, কিন্তু নিজ নিজ ক্ষেত্রে সাফল্য পেতে চাই আমরা সবাই। সব সময় একই জায়গায় আটকে থাকাটা কেউই পছন্দ করে না। এ কারণে সাফল্যের সিঁড়ি বেয়ে ওপরে উঠে যাবার একটা স্বপ্ন থাকে সবারই। কিন্তু শুনতে খারাপ লাগলেও এটা সত্যি, যে কম মানুষই এই স্বপ্নটাকে সত্যি করতে পারে। আমাদেরই কিছু খারাপ অভ্যাসের কারণে সাফল্য অধরাই থেকে যায়। এর জন্য কিন্তু আমাদের অদক্ষতা দায়ী নয়।

সাইকোলজিস্ট Mihaly Csikszentmihalyi এর মতে, কাজের মাঝে ডুবে থেকেই আমরা খুশি থাকি। কিন্তু এই কাজ হতে হবে চ্যালেঞ্জিং এবং অনুপ্রেরণাদায়ী। এই কাজ করতে গিয়েই এমন কিছু অভ্যাস আমাদের ঘাড়ে চেপে বসে, যার কারণে আমরা বারবার ব্যর্থ হই।

১) অন্যদের মতামতের বেশি গুরুত্ব দিতে গিয়ে ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়া

মানুষ সামাজিক প্রাণী। এ কারণে অন্যের মতামতে কান দেওয়াটাও স্বাভাবিক বটে। কিন্তু অন্যের চোখে ভালো হবার জন্য আমরা এমন কিছু সিদ্ধান্ত নেই যা আসলে একেবারেই অনুচিত। নিজের ক্যারিয়ারের ব্যাপারে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেওয়ার পেছনে যদি অন্যকে খুশি করার ইচ্ছে কাজ করে, তবে ব্যর্থ হবারই কথা। সাফল্যের জন্য আপনি অন্যদের কথায় কান না দিয়ে সেটাই করুন, যা আসলে যুক্তিযুক্ত। এর জন্য অনুসরণ করুন নিজের “ইন্সটিংক্ট”। আপনি যা করতে চান তার সাথে আপনার পরিবারের ইচ্ছা, বন্ধুবান্ধব বা সমাজের ইচ্ছের মিল নাও থাকতে পারে। তাদের কথা শুনে চলতে গেলে আপনি কখনোই নিজের লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন না। এই অভ্যাসটি ভাঙতে কষ্ট হতে পারে। কিন্তু সাফল্যের জন্য অন্যদের চাইতে আপনার নিজের সিদ্ধান্তটাই বেশি জরুরী।

২) পেশাটাকে পছন্দ করেন, কিন্তু ‘ভালোবাসেন’ না

নিজের পেশা অথবা বর্তমান চাকরিতে আপনি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন, ভালো কথা। কিন্তু স্বচ্ছন্দে থেকে যেন আপনার সামনে অগ্রসর হবার ইচ্ছেটা মরে না যায়। কাজটা ধীরে ধীরে আপনার সৃজনশীলতা যেন কেড়ে না নেয়। এমনটা হতে দেখলে নিশ্চিত হয়ে যান, এখানে থেকে আপনি সফল হবেন না। সফল হবার জন্য এমন একটা চাকরি আপনার প্রয়োজন যেখানে প্রতিনিয়ত নিজেকে চ্যালেঞ্জ করতে হয়, সব সময়েই নিজের সাথে নিজেকে প্রতিযোগিতায় যেতে হয়। এ কারণে স্বাচ্ছন্দ্যকর পেশায় থাকলে নিজেকে প্রশ্ন করুন, আপনি কী এই কাজটিকে আসলেই ভালোবাসেন?

নিজের উন্নতি হতে পারে এমন জায়গায় মনোযোগ দিন। নিজের ম্যানেজারের সাথে কথা বলে দায়িত্ব নিতে পারেন আরও বেশি, অথবা অন্য কোনো ডিপার্টমেন্টে যেতে পারেন যেখানে আপনার আরও বেশি উন্নতির সম্ভাবনা আছে। এমনকি আপনি যদি মনে করেন এই কাজে আপনার উন্নতির সম্ভাবনা কম তাহলে কাজ ছেড়ে দেওয়াটাও ভুল হবে না

৩) আত্মবিশ্বাসের অভাব

স্বপ্ন নিয়ে অনেক মানুষের একটা বিভ্রান্তি কাজ করে। স্বপ্নের সাফল্য কী বাস্তবে পাওয়া যাবে, নাকি তা স্বপ্নই থেকে যাবে- এটা অনেকে ভাবেন। কিন্তু একটা ব্যাপার জেনে রাখুন, আপনি যদি বিশ্বাস করেন সাফল্যের স্বপ্নটা শুধুই স্বপ্ন, তাহলে একশোভাগ নিশ্চিত হয়ে বলা যায় আপনি সফল হবে না। আমাদের মাথায় সব সময়েই ব্যর্থতার ভয় থাকে বটে। কিন্তু এই ভয় ঠেলে সাফল্যের চিন্তাটাকে সামনে নিয়ে আসতে হবে। মনেপ্রাণে বিশ্বাস করতে হবে যে আপনি পারবেন, আপনি সত্যিই পারবেন। এঞ্জেলা ডাকওয়ার্থের মতে, সাহস, সংকল্প আর মানসিক শক্তির এই মিশ্রণটি হলো আপনার বিশ্বাস, আর এটাই সাফল্যের মূলমন্ত্র।

যখনই আপনার মনে হবে আপনার স্বপ্নটা ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যাচ্ছে, তখনই নিজের এই চিন্তা বন্ধ করে দিন। বরং এমন একটি কাজের চিন্তা করুন যা করলে আপনার সাফল্য আরও কাছে আসবে।

এই তিনটি অভ্যাসের ব্যাপারে একটা সুখবর আছে। আর তা হলো, আপনি চাইলেই এসব অভ্যাস পাল্টে ফেলতে পারবেন, সবগুলোই আপনার নিয়ন্ত্রণের মাঝে। এসব অভ্যাস বাদ দিতে পারলে সাফল্যের দিকে আরো একধাপ অগ্রসর হতে পারবেন আপনি।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top