শপিং ডেটের মাধ্যমেই বুঝে নিন জীবন সঙ্গীকে

মাত্র কয়েক ঘণ্টায় কি সত্যি সঠিকভাবে কোনও মানুষকে চিনতে পারা যায়! এই সম্বন্ধে আবার বিভিন্ন মানুষের ভিন্ন মত আছে। অনেকেই বলেন, সারা জীবন একসঙ্গে থাকার পরেও সঠিকভাবে চিনতে পারা যায় না। তার ওপর আবার মাত্র কয়েক ঘণ্টাতে। কয়েক ঘণ্টাতে কাউকে চেনা সত্যি অসম্ভব। কিন্তু সারাটা জীবন যদি একজনের সঙ্গে কাটাতে চান, তাহলে সম্পর্কে প্রতিশ্রুতি বদ্ধ হওয়ার আগে আপনার হবু স্বামী অথবা স্ত্রীকে নিয়ে কোনও শপিং ডেটে যেতে পারেন। এই ডেটে আপনি মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আপনার কাছের মানুষটিকে চিনে নিতে পারবেন। এক ঝলকে দেখে নিন কীভাবে চিনবেন…

১. শপিং করতে গিয়ে আপনি বুঝতে পারবেন ভবিষ্যতে কতক্ষণ সময় আপনাকে কোনও শপিং মলের মধ্যেই কাটাতে হবে। তাহলে ভবিষ্যতে আপনার সঙ্গীর সঙ্গে কোনও ডেট ঠিক করলে শপিং-এর জন্য কতক্ষণ রাখবেন তা মাপ করে নিতে পারবেন।

২. শপিং-এর মাধ্যমে আপনার সঙ্গীর পছন্দ অপছন্দ সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হয়ে যাবেন। তবে প্রথমবার গিয়ে আগে থেকে নিজের পছন্দের কথা তার ওপর চাপিয়ে দেবেন না। যদিও তাঁকে খারাপ দেখতে লাগে তাহলেও নয়। মেনে নিন খারাপ বলার অনেক সময় পাবেন।

৩. অপরদিকে আপনাকে তাঁর কথা মত চলতে হবে কিনা সেটা যানতে পারবেন। ধরুন আপনার রেড শার্ট পছন্দ। কিন্তু আপনার সঙ্গী আপনাকে বলছে ব্লু শার্ট নিতে। কিন্তু আপনি জানেন নীল রঙ সেই ভাবে আপনার ভালো লাগে না। তখন ভুলেও তার মন রাখার জন্য তার পছন্দকেই হ্যাঁ বলবেন না যেন। তাহলেই কিন্তু সব শেষ হয়ে যাবে। সারা জীবন আপনাকে তাঁর কথা শুনেই চলতে হবে।

৪. শপিং-এ গেলে তাঁর ফ্যাশন সম্বন্ধেও জেনে যাবেন আপনি। এর ফলে পরবর্তীকালে যদি আপনি মনে করেন আপনার সঙ্গীকে কোনও উপহার দেবেন তাহলে তা অনায়াসেই সঙ্গীর পছন্দ হয়ে যাবে।

৫. সব থেকে বড় কথা আপনার প্রতি মাসের বেতন থেকে আপনার সঙ্গীর পিছনে ঠিক কত টাকা আলাদা করে রাখতে হবে তাও জানতে পারবেন। এমনকি তাঁর কোন ব্র্যান্ড পছন্দ সেটাও যেনে নিতে পারবেন।

৬. এছাড়া একটা কথা সব সময় মাথায় রাখবেন, আপনার সমস্ত পছন্দের ওপরেই যেন তিনি নিজের মত চাপিয়ে না দেন।

৭. শপিং করতে গিয়ে যা খুশি তাই খরচ না করে সমতা বজায় রেখে খরচ করুন। মনে রাখবেন কোনও সম্পর্ক শুধুমাত্রই শপিং-এর ওপরেই টিঁকে থাকে না। তাই আপনার সঙ্গী যদি শপিং-এ সমতা বজায় রাখতে না পারেন তাহলে তার সঙ্গে প্রতিশ্রুতি বদ্ধ না হওয়াই ভালো।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top