আসলে প্রেম হল একধরণের নেশা

ভ্যালেন্টাইনস ডে মানেই সারাদিন শুধু প্রেম প্রেম আর প্রেম। প্রেমের কথা। প্রেমের গান। প্রেমের কবিতা। প্রেমময় পৃথিবী আজ। সেখানে আজ অন্য কিছুর এন্ট্রি নেই। নেই কোনও মন খারাপ। নেই কোনও বিষাদের ছবি। এখনকার কবি মনোভাব প্রেমিকেরা হয়তো তাঁর প্রেমিকাকে চিরকুটে লিখেই বসলেন, ‘প্রেমের বিশ্বে আমার মনও প্রেমময়। পূর্ণিমার চাঁদ যেন তোমার মুখের প্রতিচ্ছ্ববি।’

১৩ ফেব্রুয়ারি যেই রাত বারোটা বাজল, অমনি সারা বিশ্বে হঠাত্‌ করে সবার মধ্যে প্রেম যেন উপচে পড়তে লাগল। বছরের বাকি দিনগুলো ঝগড়া করে কাটিয়ে দিলেও চলবে। কিন্তু এই দিনটায় ম্যাজিকাল থ্রি ওয়ার্ড আই লাভ ইউ বলতেই হবে। না বললে যেন পৃথিবী রসাতলে যাবে। যাঁরা একসঙ্গে আছেন তাঁদের একরকম। আর বেশিরভাগ প্রেমিক প্রেমিকা যাঁরা একসঙ্গে নেই তাঁরা যেন মোবাইলটা হাতে নিয়েই বসে ছিলেন। সঙ্গে সঙ্গে ফোন। কিন্তু একসঙ্গে সবাই সবাইকে ফোন করলে যা হয়, তাই হল। সব লাইন ব্যস্ত। লাইন ব্যস্ত পেয়ে আবার কোনও সন্দেহবাতিক প্রেমিক বা প্রেমিকা গেলেন চটে। কিন্তু মুখে প্রকাশ করলেন না। রাগটা পোস্টপোনড করে রাখলেন পরের দিনের জন্য।

ফোনে না পেলে সঙ্গে সঙ্গে পাঠানো হয়ে গেল এসএমএস।

‘আজিব সি কাসিস হ্যায় আপ মে-

কি হাম আপকি খায়ালো মে খোয়ে রহেতে হ্যায়।

ইয়ে সোচ কর কে আপ খোয়াবো মে আওগে-

হাম দিন মে ভি সোয়া করতে হ্যায়।’

এরকম সব আর কী। ও এখন তো আবার ফোন এসএমএসের কত নতুন নতুন সহজ উপায় এসেছে। এক পয়সা খরচ না করেই পাঠানো যায়। সার্ভিস প্রোভাইডররাও চালাক হয়ে গিয়েছে। তাঁরাও এই দিনে এসএমএসের জন্য বেশি চার্জ কাটছে। কিন্তু তা বলে কী প্রেম করব না? সেখানেও প্রেমের জয়। ফোনে শুধু ইন্টারনেটটা থাকলেই হল। হোয়াটস অ্যাপ নামের এক প্রেমের ঠাকুর মিলিয়ে দিলেন প্রেমিক প্রেমিকাদের। সেখানে কী সব বাহারি বাহারি মন ভোলানো কথা।

‘খুশবু তেরি পেয়ার কি মুঝে ম্যাহেকা যাতি হ্যায়।

তেরি হার বাত মুঝে ব্যাহেকা যাতি হ্যায়।

সাঁস তো বহুত দের লেতি হ্যায় আনে মে-

হার সাঁস সে প্যাহেলে তেরি ইয়াদ আ যাতি হ্যায়… ‘

এইরকমই হাজার একটা আর কী। এরকম একটা এসএমএস পেয়ে তো প্রেমে একেবারে গদগদ প্রেমিক বা প্রেমিকা। তবে এর কোনওটাই তাঁর নিজের মনের কথা নয়। এই এক এসএমএস যে কত প্রেমিক প্রেমিকা একে অপরকে পাঠাচ্ছেন তার কোনও হিসেব নেই।

আসলে প্রেম হল একটা নেশা। যা না করলে চলে না। মদ, সিগারেট, ড্রাগ যে যাই নেশা করুক না কেন, প্রেমের কাছে সব নেশাই নস্যি। আমরা সাধারণত বলে থাকি ড্রাগের নেশা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় না। আসলে এটা সত্যি নয়। খুব দেরিতে হলেও ঠিকঠাক চিকিত্‌সা করালে ড্রাগের নেশা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। কিন্তু প্রেমের নেশা এমন নেশা যা হাজার ডাক্তার দেখালেও এর থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব নয়। প্রেম একবার নয়, ঘুরে ফিরে বার বার আসে জীবনে। আর দিল তো বাচ্চা হ্যায় জী। সেও সঙ্গে সঙ্গে নির্বোধ শিশুর মতো তার মধ্যে পড়ে যায়। তাই সবশেষে এটাই বলার, প্রেমের নেশা কাটানোর চেষ্টা করবেন না। অকারন সময় নষ্ট হবে। তার থেকে বরং প্রেমের জোয়ারে গা ভাসিয়েই দিন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top