যে ৬টি কারণে গরমে তরমুজ ভালো

মধু মাস বলা হয় বৈশাখ মাসকে। বৈশাখ মাস না এলেও বাজারে রসালো ফলের দেখা পাওয়া যাচ্ছে। এইসময় যে রসালো ফলটি বেশি বাজারে দেখা যায় তা হল তরমুজ। রসালো এই ফলটি অনেকে পছন্দ করেন, আবার অনেকে পছন্দ করেনও না। গরমের দিনের বিশেষ পুষ্টিগুণ সম্পূর্ণ এই ফলটি স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করা থেকে শুরু করে ওজন পর্যন্ত কমাতে সাহায্য করে থাকে এই ফলটি!

১। হার্ট সুস্থ রাখতে

তরমুজে লিকোফেইন নামক উপাদান যা হার্ট সুস্থ রাখে এবং হাড় সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। এটি হার্টে রক্ত চলাচল সচল রাখে। রক্তচাপ ঠিক রাখতে এটি সাহায্য করে। এতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম রয়েছে যা ক্যালসিয়াম বজায় রাখতে সাহায্য করে হাড় মজবুত করে থাকে।

২। প্রোটিনের চাহিদা পূরণ করে

প্রোটিন ওজন কমাতে সাহায্য করে থাকে। আপনি যদি ওজন কমাতে চান তবে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার ডায়েটে রাখুন। প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার এ্যানার্জি লেভেল ঠিক রেখে ওজন কমাতে সাহায্য করবে।  আর তরমুজ প্রোটিনের অন্যতম উৎস।

৩। লো ক্যালরি ফ্রুট

তরমুজে ক্যালরির পরিমাণ খুব কম। একটি তরমুজে মাত্র ২৮ পরিমাণ ক্যালরি রয়েছে। যা অন্যান্য ফলের তুলনায় অনেক কম।

৪। অ্যান্টি ইনলফমেন্টরী এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ

তরমুজে ফ্ল্যাভোনয়েড, ক্যারটিনয়েড এবং ট্রিটারপেনোডিস উপাদান আছে যা ইনফ্লামেশন হ্রাস করে থাকে। ট্রাইপট্রিফেনোডে ভিটামিন ই রয়েছে যা ইনফ্লামেনটরী বৃদ্ধি করে থাকে।

৫। দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধিতে

তরমুজে বিটা ক্যারোটিন নামক উপাদান আছে যা ভিটামিন এ তে রূপান্তরিত হয়ে থাকে। ভিটামিন এ চোখের রেটিনায় পিগমেনশন তৈরি করে এবং বয়স জনিত কারণে চোখের সমস্যা দূর করে থাকে। এছাড়া ভিটামিন এ ত্বক, দাঁত, টিস্যুর উন্নতি সাধন করে থাকে।

৬। পেশি এবং নার্ভ সুস্থ রাখতে

তরমুজে থাকা প্রাকৃতিক ইলেক্ট্রোলাইট, পটাসিয়াম স্নায়ু এবং পেশি সুস্থ রাখে। পেশীকে কর্মক্ষম রাখতে সাহায্য করে থাকে। এটি আমাদের পেশীর ডিগ্রী এবং ফ্রিকোয়েন্সী নির্ধারণ করে স্নায়ু নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top