ঈদে স্লিভলেস লং গাউন

ঈদ মানে নতুন পোশাক। ঈদ মানেই জমকালো আয়োজন। তবে এবারের ঈদে তরুণীরা জমকালো পোশাকের ভিড়ে ছিমছাম গাউনই বেছে নিচ্ছে। তাও আবার ঢিলেঢালা ধাঁচের। আর গরমের কারণে তাদের কাছে স্লিভলেস গাউনই প্রাধান্য পাচ্ছে। বলতে গেলে এবারের ঈদে তরুণীদের ফ্যাশন ট্রেন্ড স্লিভলেস লং গাউন।

গাউনের লংয়ের ধারাটা একেক সময় একেক রকম থাকে। কেউ পায়ের পাতা পর্যন্ত লম্বা পরতে পছন্দ করেন। কেউ আবার পায়ের গোড়ালি থেকে এক বিঘা ওপরে পরেন। কেউ হাঁটু থেকে একটু নিচে। অনেকে স্কার্টের মতো ঘের দেন, আবার অনেকে ফিটিংস পরতে পছন্দ করেন। কোনোটার সামনের দিকে কাটা থাকে। আবার অনেক গাউনের পাশ কাটা থাকে। তবে শারীরিক গঠনের ওপর ভিত্তি করেই গাউনের ডিজাইন করা উচিত।

গাউনের ওপরের অংশ বেশির ভাগ সময়ই নিচের অংশের সঙ্গে লাগানো থাকে। তবে আজকাল অনেকে এর ওপর ঢিলেঢালা কোটি পরে। দেখতে অনেক বেশি স্টাইলিশ লাগে। কন্ট্রাস্ট কালারের পরতে পারেন আবার একই রঙেরও পরতে পারেন। তবে কোমরের দিকটা খোলা রাখলেই বেশি ভালো লাগবে। ইলাস্টিক দিয়েও কোমরে আটকে নিতে পারেন। দেখতে মন্দ লাগবে না।

গাউনের ক্ষেত্রে সুতির থেকে লিনেন, সিল্ক, হাফসিল্ক কিংবা জর্জেট কাপড় বেছে নিন। ঢিলেঢালা গাউনগুলো এ ধরনের কাপড়ে বেশি ভালো লাগে। তবে কেনার আগে খেয়াল করুন গাউনের নিচে ভালো কাপড় লাগানো আছে কি না। না হলে একবার ধোয়ার পর ছিঁড়ে যেতে পারে। গরমের এই সময়টাতে গাউনের হাতা থ্রিকোয়ার্টার বা ফুল থেকে স্লিভলেস হওয়াই ভালো। দেখতে ফ্যাশনেবল লাগবে।

আপনি চাইলে নিজের মতো করে গাউন বানিয়ে নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে চার-পাঁচ গজ কাপড় কিনতে হতে পারে। এটা পুরোটাই লম্বার ওপর নির্ভর করছে। তবে গাউনের নিচে যে পাতলা কাপড় ব্যবহার করবেন সেটাও চার-পাঁচ গজ কাপড় কিনবেন। না হলে ধোয়ার পর ভেতরের অংশটা ছোট হয়ে যেতে পারে।
যেসব গাউনের লম্বা একটু কম থাকে সেগুলোর নিচে ঢিলেঢালা ডিভাইডার পরতে পারেন। অথবা টাইটসও পরলে মন্দ লাগবে না।

মডেল : মারিয়া, মেকআপ : রেড বিউটি সেলুন, ছবি : সালেক বিন তাহের

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top