৭টি চিহ্ন যা বলছে জীবনে পরিবর্তনের এখনই সময়

হতাশায় জর্জড়িত জীবনকে জাগিয়ে তুলে নতুন সজীবতা দেবার ক্ষমতা একমাত্র মানুষেরই আছে। মানুষ কষ্ট পায়, মনের মাঝে কষ্টকে পুষে রাখে, আসপশের পরিস্থিতি তার স্ট্রেস বাড়ায়। আবার মানুষই গা ঝাড়া দিয়ে উঠে দাঁড়ায়! ঘুরে দাঁড়ায়, মোকাবেলা করে নতুন প্রতিকূলতাকে, তবু কখনো থেমে যায় না। মানুষ অপ্রতিরোধ্য।

কিন্তু কী করে বুঝবেন আপনার জীবনে সেই সময়টি কখন আসবে যখন নিত্য দিনের একঘেয়েমিতাকে বিদায় না জানালেই নয়? জীবনকে সফলতার স্পর্শ, সুখের অনুভুতি দিতে পিছুটান ছাড়তে হয়। আর সেই সময় হয়েছে বুঝবেন এই লক্ষণগুলো দেখে।

স্ট্রেস
আপনি কি আপনার দৈনন্দিন জীবন নিয়ে স্ট্রেসড? প্রতিদিনকার কাজ, অফিস, সম্পর্ক সব কিছু নিয়ে হাঁপিয়ে উঠেছেন? প্রতিদিন বোধ করছেন, আপনি লক্ষ্য থেকে দূরে শুরু যাচ্ছেন? ভেবে বের করুন, আপনি আসলে কি চান! নিজেকে স্ট্রেস থেকে মুক্তি দিন। একটা পরিকল্পনা করুন সেই চাওয়াকে বাস্তবায়নের জন্য। তারপর ধীরে ধীরে নিজেকে গুছিয়ে নিন। জীবনে পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিতে কখনও দেরি করবেন না।

আপনি বর্তমান থেকে পালাতে অতীতে হারিয়ে যান
প্রায়ই আপনি স্মৃতিচারণ করেন। ভাবেন, অতীতে অনেক ভাল ছিলেন। বর্তমান নিয়ে হতাশ বোধ করেন। পালিয়ে থাকতে চান নিত্যদিনের চিন্তাগুলো থেকে। জীবনে পরিবর্তন আনার এখনই সময়।

আপনি যখন স্বপ্ন দেখতে ভয় পান
নিজের ভবিষ্যতকে আরও ভাল করতে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না আপনি। এভাবে পেরিয়ে যাচ্ছে দিনের পর দিন। আবার নিজের বর্তমান নিয়েও আপনার হতাশার শেষ নেই। জেগে ওঠা প্রয়োজন এখনই।

ঈর্ষা
বন্ধুদের অবস্থান আপনাকে ঈর্ষান্বিত করে। প্রতিবেশীদের চাকচিক্য আপনার মনোযোগ কাড়ে রোজ। ঈর্ষা একটি নেতিবাচিক অনুভূতি। আপনাকে নিজের অবস্থান পরিবর্তনের জন্য পদক্ষেপ নিতে হবে। ভাল অবস্থানে পৌছতে পরিশ্রম করতে শুরু করুন আজ থেকেই।

ছুটির অপেক্ষা
আপনি সারাক্ষণ অপেক্ষা করেন, কবে একটু ছুটি পাবেন। ছুটি পেলেই ছুটে যাবেন কোন সুন্দর জায়গা দেখতে! এই ভ্যাকেশন হবে আগের প্রত্যেকটি থেকে আলাদা, আরও দারুণ। সারা বছর টাকা জমান আপনি একটি ছুটির জন্য। এই লক্ষণ বলছে, আপনার দৈনন্দিন জীবন নিয়ে আপনি কতটা অসুখী, অস্থির।

আপনি এর চেয়েও বেশী যোগ্য
আপনি যখন ভাবেন আপনি যে সম্মান পাচ্ছেন, আপই তার চেয়েও বেশী যোগ্য তখন আপনার মাঝে হতাশাবোধ তৈরি হয়। নিজের যোগ্যতা অনুযায়ী কাজ খুজুন। যে কাজ করে আপনি আনন্দ পান সেই কাজে নিজেকে নিয়োজিত করুন।

সম্পর্ক
আপনার ভালোবাসার সম্পর্কগুলো কি আপনাকে শান্তি দেয়? অনেক সময় পারিপার্শ্বিক অবস্থার চেয়েও আমাদের বেশী স্ট্রেস দেয় সম্পর্কের টানাপোড়েন। এমন অবস্থায় দ্রুত সিদ্ধান্ত নিন। সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার চেষ্টা অবশ্যই করবেন। তবে এটাও নিরপেক্ষ ভাবে ভেবে দেখুন, চেষ্টা টা দুই দিক থেকেই হচ্ছে কিনা! তা নাহলে দ্রুত বেরিয়ে আসুন আর মুক্ত হাওয়ায় শ্বাস নিন।

জীবন একটাই। জীবনকে উপভোগ করুন। হতাশা, নিরাশার মাঝে দীর্ঘদিন কাটানো বিভিন্নরকম মানসিক সমস্যার জন্ম দেয়। জীবনে ভুল হবে, হতাশা থাকবে। সেই হতাশার শেকল ভেঙ্গে আনন্দের স্বাদ খুঁজে নিতে হবে আপনাকেই। তাই এগিয়ে যান। ভয় পাবেন না পরিবর্তনকে।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top