৩০টি গোল্ডেন এটিকেট যা তৈরি করে আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব (পর্ব-১)

আমরা সবাই একজন আকর্ষণীয় ব্যাক্তিত্ব হিসেবে নিজেক তুলে ধরতে চাই অন্যের কাছে। নিজের ইম্প্রেশন ভাল রাখতে আমাদের সাহায্য করে কিছু এটিকেট বা শিষ্ঠাচার। আমরা যখন একা আছি বা আড্ডা দিচ্ছি বন্ধুদের সংগে তখন এই শিষ্ঠাচার রক্ষা করা জরুরী নয়। কিন্তু যখন আপনি কোন ব্যবসায়িক মিটিং এ আছেন অথবা কোন ফরমাল পার্টিতে গেছেন তখন আচরণের কিছু নিয়ম মেনে চলা আপনাকে সম্মানিত করবে সবার চোখে এবং রক্ষা করবে বিব্রতকর পরিস্থিতি থেকে।
আসুন জেনে নিই এই এটিকেট বা শিষ্ঠাচারগুলো-
রেস্টুরেন্টে-
– পুরুষেরা দরজা খুলে দেন, নারীদের আগে প্রবেশের করতে দেন। রেস্টুরেন্টে কোন সিট বুক করা থাকলে পুরুষটিকেই সেটি খুঁজে নিতে হবে এবং নারী সঙ্গীকে এগিয়ে নিতে যেতে হবে।
– রেস্টুরেন্টে জোরে হাসা বা উচ্চস্বরে কথা বলা ঠিক নয়।
– যদি কেউ একজন ডিনার আয়োজন করেন তাহলে গোল্ডেন রুলস হল, তিনিই বিল পরিশোধ করবেন। আর যদি আয়োজনটা সবাই মিলে হয়, তাহলে প্রত্যেককেই তাঁর বিল দিতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই নিজের খরচের দিকে খেয়াল রাখতে হবে এবং ওয়েটারকে আগেই ভিন্ন ভিন্ন বিল দিতে বলে রাখতে হবে।
– আপনার অতিথিই যদি বিল পরিশোধ করতে চায় তাহলে তাকে অনুৎসাহিত করাই উচিৎ। কিন্তু রেস্টুরেন্টের মত একটি পাবলিক জায়গায় খুব জোর না করে বরং তাকে/তাদেরকে সুযোগ দিন।
টেবিলে-
– টেবিল এটিকেট সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি না। তবে এটা খুব বড় সমস্যা নয়। একটা রেস্টুরেন্টে আপনাকে শুধু সেই ছুরি-চামচই দেওয়া হবে যা আপনার অর্ডার করা খাবারের সাথে প্রয়োজন। কিন্তু কিন্তু আপনি হয়ত খাওয়ার আনন্দ গ্রহণের জন্যই গেছেন, সেখানে চামচ নিয়ে দ্বন্দে পড়ে আনন্দ মাটি করার কোন মানে হয় না। নিজেকে বিব্রত না করে যেমন পছন্দ করেন তেমন আচরণ স্বাচ্ছন্দের সাথে করতে পারাও এক ধরনের আকর্ষণ তৈরি করে আপনার ব্যাক্তিত্বে।
– খাবারের মেন্যু পছন্দ না করতে পারলে ওয়েটারের সাহায্য নিন।
– আপনি যখন ব্যবসায়িক মিটিং এ আছেন তখন মোবাইল ফোনটি টেবিলের উপর রাখা থেকে বিরত থাকুন।
– ব্যবসা সংক্রান্ত মিটিং এ কখনোই এক ক্লায়েন্টের সামনে অন্য ক্লায়েন্টের সাথে ফোনে আলাপ করা ঠিক নয়।
– মিটিং এ ঠিক সময় মত পৌছানো খুবই জরুরী এটিকেট। কখনোই দেরি করবেন না। একান্তই কোন সমস্যা থাকলে আগেই ফোন দিয়ে জানান।
– যদি কোন কারণে মিটিং এ আসতে না পারেন আগেই অবগত করুন। শেষ মূহুর্তে নয়।
কথা বলার সময়-
– সম্ভ্রান্ত পরিবারে বেড়ে ওঠা ব্যক্তিরা কখনো কোন ফরমাল পার্টি বা জমায়েতে নিজের ব্যক্তিগত সমস্যা তুলে ধরে না। কর্মক্ষেত্রে আপনার অবস্থান কী, আপনার অভ্যাস, রুচি, পরিবারের সাথে আপনার সম্পর্ক এগুলো আলোচনা করা বা জানতে চাওয়া উভয়ই ভদ্রতা বরির্ভূত আচরণ।
– পরচর্চা করবেন না, অন্যকেও আপনার অজ্ঞাতে আপনাকে নিয়ে আলোচনা করার সুযোগ দেবেন না।
– আলোচনার ক্ষেত্রে বক্তার কথা সম্পূর্ণ শুনুন, তারপর নিজের মতামত দিন। এর মানে এই নয় যে, চুপ করে থাকাই ভদ্রতা। তার কথা মনোযোগ দিয়ে শুনুন। বোঝার চেষ্টা করুন।
– কথার মাঝে কখনোই কথা বলবেন না। ভদ্র ব্যাক্তিরা কখনোই মাঝপথে বাঁধা দেয় না, যতই একই কথা বার বার শুনতে হোক না কেন।
কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top