মুসলিম মহিলারা বোরখা কেন পড়েন?

ইসলাম ধর্মাবলম্বী মানুষের কাছে বোরখা একটি ‘ধর্মীয় পোশাক’। কথিত আছে ‘ইসলাম ধর্মাবলম্বী মহিলারা বোরখা পড়েন শয়তানের নজর থেকে নিজেদেরকে রক্ষা করতে’। বোরখা বা হিজাব পরপুরুষের নজর থেকে স্ত্রীকে রক্ষা করে, এই মত এখনও অনেকেই মানেন। তবে আধুনিককালে হিজাব বা বোরখাকে অনেকেই রক্ষণশীল বলেও মনে করেন। বোরখা নিয়ে নানা মতামত ও সমালোচনা থাকলেও ইসলাম প্রধান দেশগুলো এখনও বোরখাপ্রথাকে সম্মান করে এবং সেখানকার মহিলারা সমস্ত আধুনিকতার বিপরীতে বোরখাকেই সংস্কৃতি হিসেবে উপস্থাপন করে। গবেষণাতে উঠে এসেছে এই তথ্যই।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইউরোপ বিশ্ববিদ্যালয় যৌথ প্রচেষ্টায় একটি গবেষণা চালায়, সেখানেই উঠে আসে এই তথ্য। বেলজিয়াম, তুরস্ক সহ আরও ২৫টি ইসলামিক দেশে এই গবেষণা করা হয়। গবেষকরা যে তথ্য পেয়েছেন এই গবেষণা থেকে, তা এই রূপ- পর্দাপ্রথা একটি সুপ্রাচীন ধর্মীয় রীতি। মুসলিমরা একে পবিত্র বলেই মানেন। এমনকি আধুনিক সমাজ বিবর্তনের পথে যে যে নয়া সাংস্কৃতিক ভাবধারার সৃষ্টি করছে তার বিপরীত সাংস্কৃতিক ভাবনাচিন্তার উদাহরণ স্বরূপ বোরখা, হিজাবকে প্রাধান্য দিচ্ছেন মুসলিম মহিলারা। শুধু তাই নয়, মুসলিম মহিলারা মনে করেছেন বর্তমান ‘পপ’ সংস্কৃতির প্রলোভন থেকে নিজেদের দূরে রাখতে হিজাব একটি ধারালো হাতিয়ার।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top