দূরত্ব যতই হোক বন্ধুত্ব থাকুক অমলিন

ছেলেবেলার বন্ধুদের চেয়ে দামী সঙ্গী আর কেউ কি কখনো হতে পারে? জীবনের চলার পথে যত বন্ধুই পাই না কেন কিছু বন্ধু হয় রত্নের মত। আমরা তাদের হারাতে চাই না। আজীবন ধরে রাখতে চাই। কিন্তু সময়ের প্রয়োজনে জীবনের পরিবর্তনের সাথে তাল মেলাতে বন্ধুদের হাত ছেড়ে দিতে হয় অনেক সময়ই। রোজ দেখা হওয়া, আড্ডা, একসাথে ফূর্তি করা না হয় না হল, তাই বলে কী বন্ধুত্ব মলিন হয়ে যাবে? না। সচেতনভাবে ধরে রাখুন বন্ধুত্বের সজীবতা এই কৌশলে ।

ছবি শেয়ার করুন
যে যেখানেই থাকুন না কেন নিজেদের দৈনন্দিন জীবনের গল্প নিয়ে আসুন স্থিরচিত্রে। নিজেদের মাঝে শেয়ার করুন সেগুলো। Out of sight out of mind- কথাটি কিন্তু বাস্তব। আপনি যখন অনেকদিন একজন মানুষকে দেখেন না, তার সাথে কথা বলেন না, তার প্রতি আপনার মানসিক নির্ভরতা কমতে থাকে। আপনি নিশ্চয়ই চান না আপনার বন্ধুত্বে ঘনিয়ে আসুক সেই দিন? সেলফি তুলুন। এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে যোগাযোগ অনেক সহজ হয়েছে। জীবনের একটা মুহূর্ত সহজেই গল্পের মত তুলে আনা যায় সবার সামনে। এই গল্প বলুন আপনার বন্ধুকে। যখনই সময় পান তখনই বলুন। চোখের আড়াল যেন মনের আড়াল না হয়।

চ্যাট করুন
ইন্টারনেটের বদৌলতে দুনিয়া এখন হাতের মুঠোয়। তবুও শত কাজের ফাকে যোগাযোগ করা কেমন যেন হয়ে ওঠে না। একা একা বেলা কেটে যায়, মনের কত কথা হারিয়ে যায় বলা হয় না! এভাবেই বাড়ে দূরত্ব। কথা জমিয়ে না রেখে বলুন। আজ কি দেখে আপনার ভাল লাগলো, কোন জিনিসটা ভাল লাগলো না, নতুন কি ঘটলো সব গল্প নিয়ে আসুন টুকরো টুকরো মেসেজে। থাকুন সবসময় একে অপরের সাথে সংযুক্ত।

গেমস খেলুন
হাস্যকর লাগলেও সংযুক্ত থাকার জন্য এটি কিন্তু একটি মজার মাধ্যম। আপনি যদি না খেলে থাকেন কখনো তাহলে শুরু করতে পারেন। আপনি যখন একটি গেমস এ প্রবেশ করেন তখন পুরোপুরি অন্য এক পৃথিবীতে প্রবেশ করেন। সেখানে থাকে রোমাঞ্চ, হার-জিতের ভয় আর আনন্দ। একবার একটা খেলায় প্রবেশ করলে আপনি আপনার বন্ধুর সাথে যোগাযোগ বন্ধই করতে পারবেন না। বরং নতুন করে উপভোগ করার মত একটি বিষয় পেয়ে আপনাদের একত্রে সময় কাটানো হবে আরো চমৎকার, ঘনিষ্ট।

গোপন গল্প
আমাদের সবারই কিছু গোপন কথা থাকে। যা আমরা কাউকে বলতে চাই না। বন্ধু দূরে চলে গেলে কিন্তু তিনি তখন সেই মানুষ যে আপনার গোপন কথা জানলেও কাউকে বলবেন না। তার সাথে আনন্দের সাথে ভাগাভাগি করতে পারেন নিজের গোপন গল্পগুলো। সামনাসামনি বসে এই কথাগুলো বলতেই হয়ত আপনার সংকোচ হবে। কিন্তু দূর পরবাসে বসে থাকা মানুষটিকে না দেখে বলে দেওয়া যায় অনেক কথাই। এভাবে কিন্তু ঘনিষ্ঠতাও বাড়বে, কমে যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

একটু কষ্ট করুন
বন্ধুর সাথে যোগাযোগ রাখবেন, কিন্তু তা কি শুধুই ভাল সময়ে বা আপনার পছন্দসই সময়ে? ভৌগলিক দূরত্ব যখন অনেক বেশী তখন কিন্তু বদলে গেছে আপনাদের ঘড়ির সময়ও। তাই হয়ত সন্ধ্যায় কথা বলা আপনাদের দুজনের জন্যই যথাযথ। তবে, আপনার বন্ধু যে কোন বিশেষ প্রয়োজনে মধ্যরাতেও ফোন করতে পারে আপনাকে। তার কোন একটি খারাপ সময়, বিপদগ্রস্থ অবস্থায় আপনার সহায়তা প্রয়োজন হতে পারে, যেহেতু আপনি দেশে আছেন, তার পরিবারের কাছে আছেন। বন্ধুর দুঃসময়েও তার পাশে থাকুন। ভালবাসুন সবসময়, শুধু নিজের জন্য নয়, তার জন্যেও।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top