শুধু তিন শ্রেণির মানুষের রয়েছে আংটি পরার অনুমতি

হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াল্লাম- এর আমল থেকে যতটুক বোঝ যায়, তা হলো পুরুষের জন্য শুধু রুপার আংটি ব্যবহার করা জায়েজ। তবে কোনো কারণ ছাড়া আংটি না পরাই ভালো। কারণ আমাদের মহানবী (সা.) প্রয়োজনের থাকায় আংটি ব্যবহার করেছেন। প্রয়োজন সৃষ্টি হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি কোনো আংটি ব্যবহার করেননি। তাই কোনো কোনো তাবেঈ থেকে বর্ণিত আছে যে, কেবলমাত্র তিন শ্রেণির মানুষই আংটি পরিধান করবে। এক. রাজা-বাদশা। দুই.বিচরক। তিন. বেকুফ। বেকুফ বলতে সেই ব্যক্তিকে বোঝানো হয়েছে যে বিনা প্রয়োজনে আংটি ব্যবহার করে। (ফতওয়ায়ে শামী)

হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পিতল এবং লোহার আংটি ব্যবহার করতে নিষেধ করেছেন। (আবু দাউদ) তবে লোহার উপর যদি রুপার পাত মোড়ানো থাকে তাহলে সেটা ব্যবহার করা যেতে পারে। উল্লেখ্য, এই বিধান নারী-পুরুষ উভয়ের জন্যই। (ফতওয়ায়ে শামী)

পুরুষের জন্য নিয়ম হলো আংটির অলংকিত দিকটি ভিতরের দিকে রাখতে হবে। তবে মেয়েরা বাইরের দিকেও রাখতে পারবে। (ফতওয়ায়ে শামী)

পুরুষের জন্য রুপার তৈরি আংটি ছাড়া অন্য কোনো আংটি ব্যবহার করা জায়েজ নেই। তবে ইচ্ছা করলে রুপার আংটিতে পাথর কিংবা কাচ স্থাপন করতে পারে। (দুররে মুখতার)

অবশ্য রুপার আংটির ক্ষেত্রেও রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম শর্ত দিয়েছেন, তা হলো আংটি সাড়ে চার মাশার চাইতে ওজনে কম হতে হবে। (আবু দাউদ) আর এটাই হানাফি ফকিহগণের মত। (মিরকাত)

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top