ঠোঁটই বলে দেবে মানুষের সম্পর্ক!

চোখে চোখে যত কথাই হোক না কেন, ঠোঁটই নাকি মানুষ বোঝার আসল চাবিকাঠি! হ্যাঁ, ঠোঁট দেখেই নাকি বোঝা যায় মানুষটি কোনও সম্পর্কে আছেন নাকি তিনি একাকিত্বের সঙ্গে জীবন কাটাচ্ছেন। কীভাবে বুঝবেন? জেনে নিন সহজ সরল উপায়-

– কোনও ব্যক্তির উপর, নিচ দুই ঠোঁটই যদি পাতলা এবং সরু হয়, বুঝবেন তিনি কোনও সম্পর্কে নেই। একাকিত্বই তাঁর জীবনের সঙ্গী এবং অবশ্যই মনে রাখবেন এই ধরনের মানুষ একা থাকতেই পছন্দ করেন।

– যাঁদের ঠোঁট সুন্দর, তাঁরা ভীষণ ভালো কথা বলেন। একই সঙ্গে জেনে রাখুন, সুন্দর ঠোঁটের মালিক যাঁরা, তাঁরা জন্মগত সৃজনশীল। এই ধরনের মানুষের সঙ্গে কথা না বলে তাদের বিচার করলে অবধারিত ভুল হবে।

– যাঁদের ঠোঁটের কোনও নির্দিষ্ট আকার নেই এবং সুন্দরের ধারের কাছেও অবস্থান করছে না, তাঁরা সবসময়ই ‘ঠোঁট কাটা’। স্থান কাল পাত্র না দেখেই বেফাঁস মন্তব্য এই ধরনের ঠোঁট-ধারী মানুষের স্বভাব। এঁরা একেবারেই দায়িত্বশীল নন। তবে সযত্নে কোনও কিছুর লালনে এদের তুলনাই হয় না।

– যাঁদের ঠোঁটের বাঁধুনি গোলাকৃতির তাঁরা সাধারণত সহৃদয় ব্যক্তিই হয়ে থাকেন। আন্তরিকতা এদের গুণ। এরা সবসময় নিজের সঙ্গীর সঙ্গে সময় কাটাতে চান।

– হৃষ্টপুষ্ট অথবা মাংসল ঠোঁটের ব্যক্তিরা সাধারণত লাইম লাইটকেই সর্বাধিক প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। এই ধরনের মানুষ মজা করতে খুব পছন্দ করেন এবং এরা কখনই একা থাকতে পারেন না।

– ওপরের ঠোঁটের তুলনায় নিচের ঠোঁট যাঁদের স্ফীত, তাঁরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অ্যাচিভমেন্টকে বেশি প্রাধান্য দেন। সম্পর্কের আগেও তাঁরা কৃতিত্বকে বেশি ভালোবাসেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে পুরুষরাই এই ধরনের ঠোঁটের অধিকারী হয়ে থাকেন।

ওয়েব ডেস্ক: চোখে চোখে যত কথাই হোক না কেন, ঠোঁটই নাকি মানুষ বোঝার আসল চাবিকাঠি! হ্যাঁ, ঠোঁট দেখেই নাকি বোঝা যায় মানুষটি কোনও সম্পর্কে আছেন নাকি তিনি একাকিত্বের সঙ্গে জীবন কাটাচ্ছেন। কীভাবে বুঝবেন? জেনে নিন সহজ সরল উপায়-

– কোনও ব্যক্তির উপর, নিচ দুই ঠোঁটই যদি পাতলা এবং সরু হয়, বুঝবেন তিনি কোনও সম্পর্কে নেই। একাকিত্বই তাঁর জীবনের সঙ্গী এবং অবশ্যই মনে রাখবেন এই ধরনের মানুষ একা থাকতেই পছন্দ করেন।

– যাঁদের ঠোঁট সুন্দর, তাঁরা ভীষণ ভালো কথা বলেন। একই সঙ্গে জেনে রাখুন, সুন্দর ঠোঁটের মালিক যাঁরা, তাঁরা জন্মগত সৃজনশীল। এই ধরনের মানুষের সঙ্গে কথা না বলে তাদের বিচার করলে অবধারিত ভুল হবে।

– যাঁদের ঠোঁটের কোনও নির্দিষ্ট আকার নেই এবং সুন্দরের ধারের কাছেও অবস্থান করছে না, তাঁরা সবসময়ই ‘ঠোঁট কাটা’। স্থান কাল পাত্র না দেখেই বেফাঁস মন্তব্য এই ধরনের ঠোঁট-ধারী মানুষের স্বভাব। এঁরা একেবারেই দায়িত্বশীল নন। তবে সযত্নে কোনও কিছুর লালনে এদের তুলনাই হয় না।

– যাঁদের ঠোঁটের বাঁধুনি গোলাকৃতির তাঁরা সাধারণত সহৃদয় ব্যক্তিই হয়ে থাকেন। আন্তরিকতা এদের গুণ। এরা সবসময় নিজের সঙ্গীর সঙ্গে সময় কাটাতে চান।

– হৃষ্টপুষ্ট অথবা মাংসল ঠোঁটের ব্যক্তিরা সাধারণত লাইম লাইটকেই সর্বাধিক প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। এই ধরনের মানুষ মজা করতে খুব পছন্দ করেন এবং এরা কখনই একা থাকতে পারেন না।

– ওপরের ঠোঁটের তুলনায় নিচের ঠোঁট যাঁদের স্ফীত, তাঁরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অ্যাচিভমেন্টকে বেশি প্রাধান্য দেন। সম্পর্কের আগেও তাঁরা কৃতিত্বকে বেশি ভালোবাসেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে পুরুষরাই এই ধরনের ঠোঁটের অধিকারী হয়ে থাকেন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top