খাবারে বিষক্রিয়ার ঘরোয়া উপায়ে প্রাথমিক চিকিত্সা

প্রতিদিন কতরকম খাবার খেতে হচ্ছে আপনাকে। কখনও ডাল-ভাত আবার কখনও বিরিয়ানি কখনও পিত্জা-বার্গার আবার কখনও খিচুড়ি, ফুচকা, ঘুগনি। অফিসে কাজ করতে করতে কখনও চা, কখনও কফি। তারসঙ্গে চিপস বা চিড়ে ভাজা। বাড়িতে থাকলেও টিভি দেখতে দেখেতে কখনও ঠান্ডা পানীয় আবার কখনও অন্য কিছু। সব সময় মুখ কিন্তু চলছেই। আর এর মধ্যেই কখন যে পেট বেগড়বাই করে, তা বোঝা দায়।

প্রতিদিনের বিভিন্ন ধরণের খাবরের মধ্যে কোন খাবারে কখন বিষক্রিয়া হয়, তা বুঝতে পারেন না আপনিও। ফলে, কখনও পেটে ব্যথা কখনও বমি আবার কখনও পেট খারাপের মত সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় আপনাকে। খাবারে বিষক্রিয়া হলে, চিকিত্সকের কাছে যাওয়া থেকে শুরু করে ওষুধ খাওয়া, সবকিছুতেই বেশ ঝক্কি পোহাতে হয় আপনাকে। তাই বিষক্রিয়া থেকে বাঁচতে প্রতিদিন এমন কিছু খাবার আপনাকে খেতে হবে, যা থেকে প্রতিদিনের যে কোনও খাবারের বিষ থাকলে তার প্রাথমিক চিকিত্সা করা যায়।

যেমন মধু। আপনি যদি প্রতিদিন একটু করে মধু খেতে পারেন, তাহলে পেটের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে পারেন। মধুতে যে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়া রয়েছে, তা খাবারের বিষক্রিয়া থেকে রক্ষা করতে পারে।

পেট খারাপ বা পেটের সমস্যা হলে রসুন খেতে পারেন। ডিহাইড্রেশন থেকে মুক্তি দেয় রসুন। পেট খারাপ হলে যে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া থাকে, সেগুলিকে বের করে দিতে সক্ষম রসুন। তাই খাবারে বিষক্রিয়ার প্রাথমিক চিকিসায় রসুন বেশ উপকারী।

পাকস্থলীতে কোনও সমস্যা হলে আদা খান। পাকস্থলীতে জ্বলন থেকে শুরু করে অন্য কোনও সমস্যা থেকে রক্ষা করে আদা। তাই চা বা জুসের সঙ্গে আদা যোগ করেও খেতে পারেন আপনি। তাতেও পাবেন উপকার।

খাবারে বিষক্রিয়া থেকে রক্ষা করে লেবুও। লেবুর মধ্যে যে ভিটামিন সি রয়েছে, তা খাবারে বিষক্রিয়া থেকে রক্ষা করে। তাই পেট ভাল রাখতে লেবু খান।

খাবারে বিষক্রিয়া থেকে বাঁচতে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার খান। এতে যেমন আপনার ত্বক ভাল থাকবে তেমনি চুলও থাকবে ভাল। তেমনি খাবারে বিষক্রিয়া হলেও, অ্যাপেল সিডার ভিনিগার খেতে পারেন। খাবার আগে গরম জলে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার দিয়ে খেলে যেমন উপকার পাবেন, তেমনি স্যালাডেও যোগ করতে পারেন অ্যাপেল সিডার ভিনিগার। সবকিছুতেই উপকার পাবেন।

প্রাথমিক উপায়ে চিকিত্সায় না কমলে, অবশ্যই চিকিত্সকের পরামর্শ নিন

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top