দেশে বাড়ছে ভুলে যাওয়া রোগ বা ডিমেনশিয়া

দেশে বাড়ছে ভুলে যাওয়া রোগ। ডিমেনশিয়া বা স্মৃতিভ্রংশ রোগে আক্রান্ত রোগীরা কিছু মনে রাখতে পারে না। ২০১৫ সালে দেশে ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল পাঁচ লাখ। ২০৩০ সালে ওই সংখ্যা বেড়ে নয় লাখ হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীতে আয়োজিত একটি সেমিনারে এসব তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ আলঝেইমার সোসাইটি। ডিমেনশিয়ার একটি বড় কারণ হচ্ছে আলঝেইমার্স। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য দিয়েছে।

ওই সংস্থা জানিয়েছে, ২০৫০ সাল নাগাদ ওই রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২২ লাখ হওয়ার আশঙ্কা আছে। রোগটির কারণে একটু আগে করা কাজও ভুলে যায় রোগী।

সোসাইটির একজন সদস্য এবং সাবেক সংসদ সদস্য সেলিনা জাহান লিটা বলেন, ‘দিন দিন রোগের প্রকোপ বেড়েই চলেছে। সে হিসেবে প্রতিকারের ব্যবস্থা খুব কম।’ তিনি আরো বলেন, ‘মানুষকে সচেতন করা দরকার। তাহলে আক্রান্ত হলেও মানুষ বৃদ্ধ বয়সে করুণ পরিণতির মুখোমুখি হবে না।’

সেলিনা জাহান জানান, দেশের ৬০ বছরের বেশি বয়সের মানুষ ওই রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। আবার ৪০-৫০ বছর বয়সের মানুষও আক্রান্ত হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘দেশে যারা দরিদ্রসীমার নিচে আছে তাদের ওই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। উচ্চবিত্ত অনেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন কিন্তু মূলত রোগটির ক্ষেত্রে বেশি দরকার সচেতনতা।’

সেলিনা জাহান বলেন, ‘ডিমেনশিয়া নিয়ে সরকারিভাবে কোনো উদ্যোগ চোখে পড়ে না। রোগটির তেমন চিকিৎসা নেই।’ তবে রোগটি নিয়ে সচেতনতা তৈরি হওয়া গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন তিনি।

সেলিনা জাহান বলেন, ‘সচেতন হলে রোগটিকে আমরা নিয়ন্ত্রণে আনতে পারব। বৃদ্ধ বয়সের করুণ পরিণতি থেকে রক্ষা করতে পারব।’

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top