চট্টগ্রামে জমকালো ফ্যাশন-সন্ধ্যা

বন্দরনগরে সারা বছরের অপেক্ষা, অবশেষে এল সেই ক্ষণ। আলোঝলমলে মঞ্চে ঈদ পোশাক নিয়ে ফ্যাশন শো। উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়ল দর্শকদের মধ্যেও।
১৩ জুন চট্টগ্রামে হয়ে গেল ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড-প্রথম আলো ঈদ ফ্যাশন প্রতিযোগিতা। পাঁচতারকা হোটেল র্যাডিসন ব্লুর মোহনা মিলনায়তনে আয়োজিত হয়ে গেল এটি। সঙ্গে ছিল উপস্থাপক ইমতুর কথার জাদু।
.ঘড়ির কাঁটা সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় আসতেই নিভে গেল মিলনায়তনের আলো। ‘মম চিত্তে, নিতি নৃত্যে’ গানের সঙ্গে মঞ্চ মাতান অনন্য বড়ুয়া ও তাঁর সহশিল্পীরা। এরপর ফ্যাশন শো, শুরুতেই শাড়ি। একে একে প্রদর্শিত হয় পাঞ্জাবি, সালোয়ার-কামিজ ও ফতুয়া। পোশাকে দেখা গেল কিছুটা পরিবর্তনের ছোঁয়া। প্যাটার্নে এসেছে নতুনত্ব।
চারটি কিউর পর আবার নাচ। এরপর মঞ্চে অন্য রকম পরিবেশ। র্যাম্পে হেলেদুলে এল আট খুদে মডেল। পরপর চলে সালোয়ার-কামিজ, ফিউশন ও যুগল পোশাকসহ আরও কয়েকটি কিউ।
এদিকে চলছে বিচারকদের চুলচেরা বিশ্লেষণে ফলাফলের যোগ-বিয়োগ। এই ফাঁকে মঞ্চে শুরু হয় কথামালা। ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, ‘সুন্দর এই আয়োজনের মাধ্যমে ডিজাইনারদের সুযোগ করে দিচ্ছে প্রথম আলো। আমরা সব সময় প্রথম আলোর সঙ্গে থাকতে চাই।’
রিজেন্ট এয়ারওয়েজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাশরুফ হাবিব বলেন, ‘চট্টগ্রামের ডিজাইনারদের পোশাক আমার ভালো লেগেছে। তাঁদের কাজ বেশ ভালো।’ প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, ‘পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা বাংলাদেশিরা দেশের খবর জানেন প্রথম আলোর মাধ্যমে। তাঁদের আবেগ, ভালোবাসা আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি, বড় অনুপ্রেরণা।’ এদিন আরও বক্তব্য দেন শিক্ষাবিদ সাফিয়া গাজী রহমান। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক বিশ্বজিৎ চৌধুরী।
কথামালা শেষে গানে গানে আসর জমান সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ। তাঁর গানের সঙ্গে মিথুন চক্রবর্তীর বাদন আসর মাত করে।
এদিন ১২টি বিভাগে পুরস্কার জেতেন ডিজাইনাররা। সেরাদের সেরা হন জত্রিতা বুটিকসের উম্মে কুলসুম। এবারের আয়োজনে পৃষ্ঠপোষক ছিল ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, সহপৃষ্ঠপোষক রিজেন্ট এয়ারওয়েজ, প্রচার সহযোগী চ্যানেল টোয়েন্টিফোর ও রূপসজ্জায় পারসোনা। এবার পোশাকের নকশায় এসেছে নতুনত্ব। ছবি: সৌরভ দাশ

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top