বাজারে ইলিশ আছে, নেই বৈশাখের আমেজ

আগামী বুধবার (১৪ এপ্রিল) পহেলা বৈশাখ। ওই দিন থেকেই করোনাভাইরাস বিস্তার রোধে কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছে সরকার। ফলে পহেলা বৈশাখের কোনও প্রভাব নেই ইলিশের বাজারে। প্রতি বছর স্বাভাবিক অবস্থায় পহেলা বৈশাখের যে আয়োজন চলে এবার তা নেই। ঘরে ঘরে পান্তা ইলিশের আয়োজনও বলতে গেলে এবার ম্লান করে দিয়েছে করোনা।রাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতারাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতা

সোমবার (১১ এপ্রিল) রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে ঘুরে দেখা গেছে, প্রচুর ইলিশ থাকলেও ক্রেতা নেই তেমন। নেই বৈশাখী কোনও আমেজ ও উত্তেজনা। সে কারণে নিত্যদিনের বাজারের চিত্রই ইলিশ মাছের দোকানগুলোতে দেখা যাচ্ছে। রাজধানীর মোহাম্মদপুরের টাউন হল, কৃষি মার্কেট, সিয়া মসজিদ বাজারসহ আশপাশের মাছ বাজারে গিয়ে এমন চিত্র দেখা গেছে।রাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতারাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতা

ইলিশ মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, এক কেজি ওজনের ইলিশ মাছের দাম এক হাজার টাকা থেকে এক হাজার ২০০ টাকা।  এক কেজির নিচে ৯০০ গ্রাম ইলিশের দাম এক হাজার টাকা বা সামান্য কম। এর চেয়ে কম ওজনের ইলিশের ক্ষেত্রে ৭০০ গ্রাম থেকে ৮০০ গ্রাম ৭৫০ টাকা। আধা কেজি ওজনের ইলিশের দাম ৫০০ টাকা বা তার নিচে। ২০০ গ্রাম থেকে ২৫০ গ্রাম ইলিশ (জাটকা টাইপ) দাম ৩০০ টাকা।রাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতারাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতা

মোহাম্মদপুর টাইন হল বাজারের ইলিশ মাছ ব্যবসায়ী ম্যামল চন্দ্র সরকার বলেন, ‘এক কেজি ওজনের ইলিশি বিক্রি করছি এক হাজার ২০০ টাকায়। ৭০০ থেকে ৮০০ গ্রাম ইলিশ বিক্রি করছি এক হাজার টাকায়।  এরচেয়ে ছোট ইলিশ বিক্রি করি না।  এছাড়া এবার বেচাকেনা ভালো না। ক্রেতাও নাই।’রাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতারাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতা

টাউন হল বাজারের মাছ ব্যবসায়ী বাদশা বলেন, ‘গত বছরও পয়লা বৈখাখের এই সময়টায় প্রতিদিন মাছ বিক্রি করেছি এক লাখ টাকার। এখন ৩০ হাজার টাকা বিক্রি করতে পারছি না।  এবার বৈশাখ কবে তা বুঝতে পারছি না।’রাজধানীর বাজারগুলোতে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতারাজধানীর বাজারগুলোতে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতা

ইলিশ মাছ ব্যবসায়ী মো. আলমগীর বলেন, ‘গত বছর কোল্ড স্টোরেজের এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি করেছি এক হাজার ৪০০ থেকে এক হাজার ৫০০ টাকায়।  টাটকা ইলিশ বিক্রি করেছি দুই হাজার ৫০০ টাকা থেকে তিন হাজার টাকায়। এবার এক কেজি বা সামান্য বেশি ওজনের টাটকা ইলিশ বিক্রি করছি সর্বোচ্চ এক হাজার ৩০০ টাকা থেকে এক হাজার ৪০০ টাকায়।’

সিয়া সমজিদ বাজারের ইলিশ ব্যবসায়ী ইউসুফ বলেন, ‘আধা কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি করছি ৫০০ টাকায়। ছোট ইলিশের দাম বড় ইলিশের চেয়ে তুলনামূলক বেশি।’রাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতারাজধানীর বাজারে এখন প্রচুর ইলিশ, তবে নেই ক্রেতা

মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড বাজারের মো. বিল্লাল বলেন, ‘এক কেজি ওজনের ইলিশ এক হাজার ২০০ থেকে এক হাজার ৩০০ টাকা। ২০০ গ্রাম থেকে ২৫০ গ্রাম ইলিশ বিক্রি করছি ৩০০ টাকায়।  গত বছরের মতো কেউ এবার মাছ কিনছে না। অর্ধেকেরও কম মাছ বিক্রি হচ্ছে।’

বিভিন্ন বাজারের ইলিশ মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, কবে পহেলা বৈশাখ তা বাজারের অবস্থা দেখে বুঝতে পারছেন না তারা। কেউ পহেলা বৈশাখের জন্য মাছ কিনতে আসছে কিনা তাও জানি না।  পহেলা বৈশাখের সময় আসতে না না আসতেই মাছ কেনার ক্রেতার অভাব হতো না। এবার তা নেই।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top