ঘরের কাজের জন্য সাবেক স্ত্রীকে ৬০ লাখ টাকা দেওয়ার নির্দেশ আদালতের

বিবাহ বিচ্ছেদের পরই ঘরের কাজের জন্য পারিশ্রমিক চেয়ে মামলা করেছিলেন সাবেক স্ত্রী

৩০ বছরের সংসার। কিন্তু নানা কারণে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায় স্বামী-স্ত্রীর। এরপরই সংসার জীবনে ঘরের কাজের জন্য পারিশ্রমিক দাবি করে মামলা করেন স্ত্রী। আদালত সেই অভিযোগ আমলে নিয়ে স্ত্রীর পক্ষে রায়ও দিয়েছেন, ৬০ হাজার ইউরো যা বাংলাদেশি টাকায়  ৬০ লাখ টাকারও বেশি।

সম্প্রতি পর্তুগালের একটি আদালত এই রায় দিয়েছে।

অডিটি সেন্ট্রাল ম্যাগাজিনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩০ বছরের দাম্পত্যজীবন ভেঙে যাওয়ার পর চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে মামলাটি করেন ওই নারী। দীর্ঘ আইনি লড়াই শেষে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত এ রায় দেন।

তবে আদালতের রায় মেনে নিতে রাজি নন স্বামী। তিনি ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন বলে জানা গেছে।

এর আগে, এমনই একটি ঘটনায় চীনের বেইজিংয়ের একটি আদালত এমনই এক ঘটনার এক রায়ে স্ত্রীকে অর্থ পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত।

ওই ঘটনায় আদালতের নথি সূত্রে জানা যায়, চেন নামের এক ব্যক্তি ওয়াং নামের এক নারীকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু গত বছর বিবাহ বিচ্ছেদ চেয়ে আদালতে আবেদন করেন চেন। ওয়াং বিবাহ বিচ্ছেদে রাজি ছিলেন না। কিন্ত পরে চেনের বিরুদ্ধে আর্থিক ক্ষতিপূরণের মামলা করেন ওয়াং। তার দাবি, বৈবাহিক জীবনে ঘরের কোনো কাজই করেননি চেন। এমনকি সন্তানদের দেখভালও করেননি তিনি।

দীর্ঘ শুনানির পর রায়ে বেইজিংয়ের ফাংশান জেলা আদালত চেনের প্রতি ৫০ হাজার ডলার ওয়াংকে দেওয়ার নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে মাসিক খোরপোষ বাবদ প্রতিমাসে আরও দুই হাজার ডলার দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top