রোজা রেখে সুগন্ধি ব্যবহার করা যাবে?

মাহে রমজানের এই মাসে আমাদের অনেকেরই মনে নানা প্রশ্ন আসে। আমাদের আজকের প্রশ্ন হলো- রোজা রেখে আতর, সুগন্ধি বা পারফিউম ব্যবহার করা যাবে কি?

উত্তর: রোজা ভঙ্গের কারণ হচ্ছে স্বাভাবিক প্রবেশপথ দিয়ে পেটে বা মস্তিষ্কে কোনও জিনিস প্রবেশ করা। আতর বা পারফিউমের ঘ্রাণ নেওয়ার কারণে সরাসরি তা শরীরে প্রবেশ করে না। তাই রোজা রেখে আতর, সুগন্ধি ও পারফিউম ব্যবহার করলে রোজা ভঙ্গ হবে না। হাদিস শরিফে বর্ণিত হয়েছে, নবী করিম সা. রোজাদারকে সুগন্ধি দিয়ে মেহমানদারীর কথা বলেছেন।

মনে রাখবেন, আতর ব্যবহার করা সুন্নত। তবে পারফিউমে অ্যালকোহল ব্যবহার করা হয়। তাই পারফিউম ব্যবহার করার আগে কিছু জিনিস জানতে হবে।

যেমন- খেজুর বা আঙুরের রস থেকে তৈরি অ্যালকোহল জাতীয় পানীয় অপবিত্র। তাই তার ব্যবহার জায়েজ নেই। যদি এটি অন্য কোনও জিনিস থেকে তৈরি করা হয়, তাহলে তা পবিত্র। তার ব্যবহার জায়েজ আছে। আজকাল পারফিউমে যে অ্যালকোহল ব্যবহার করা হয়, তা খেজুর বা আঙুর থেকে প্রস্তুত করা হয় না। এগুলো তৈরি হয় সাধারণত চাল, গম, পেট্রল ও আলু থেকে। তাই এমন পারফিউম নাপাক নয়। এগুলো ব্যবহারে কাপড়ও নাপাক হবে না। এমন পারফিউম লাগানো কাপড়ে নামাজ পড়া যাবে। তবে এক্ষেত্রে অ্যালকোহল ও অ্যালকোহলিক পানীয়কে এক মনে করা যাবে না।

তথ্যসূত্র : বায়হাকি শরিফ, হাদিস নং-৩৯৬০, ফতহুল বারি, খণ্ড-৪, পৃষ্ঠা-২০৭, তাকমিলা ফাতহুল মুলহিম : খণ্ড ৩, পৃষ্ঠা ৬০৮, কিতাবুল ফাতাওয়া খণ্ড-৩, পৃষ্ঠা-৩৯৩

সংকলক: মাওলানা মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজী, দাওরায়ে হাদিস, দারুল উলুম দেওবন্দ, উত্তর প্রদেশ, ভারত। ইফতা, জামিয়া আন‌ওয়ারুল হুদা, হায়দারাবাদ, ভারত। খতিব, পীর ইয়ামেনী জামে মসজিদ, গুলিস্তান, ঢাকা। মুফতি ও মুহাদ্দিস, জামিয়া আরাবিয়া দারুল উলুম নতুনবাগ মাদ্রাসা, রামপুরা, ঢাকা

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top