সুষ্ঠু উপায়ে অতিথি আপ্যায়নে কিছু টিপস

বাড়িতে আত্মীয়-স্বজন বা বন্ধুমহলকে দাওয়াত করাটাই যথেষ্ট নয়। আপনাকে সুষ্ঠুভাবে অতিথি আপ্যায়নের কাজটাও সম্পন্ন করতে হয়। নয়তো তাদের প্রতি আপনার স্নেহ-ভালোবাসা ও আন্তরিকতার প্রকাশ ঘটবে না। এখানে জেনে নিন, সঠিক উপায়ে মেহমানদারির উপায়।

ডিনারের ক্ষেত্রে যা করবেন-

১. মেহমান আসার পর তাদের বসার ব্যবস্থা সঠিকভাবে করুন। এতে উষ্ণ অভ্যর্থনার লক্ষণ প্রকাশ পায়।

২. খাবার টেবিলে সব কিছু আগে থেকেই রেডি করে রাখুন। অথবা খাওয়ার সময়ের কিছু আগে সব গুছিয়ে নিন। এতে শেষ সময়ের পেরেশানি দূর হবে।

৩. খাবার টেবিলে তাজা ফুল রাখার চেষ্টা করুন। এতে টেবিলে বসেই মেহমানদের মন ভালো হয়ে যাবে।

৪. যদি ফুলে রাখার ব্যবস্থা না করতে পারেন, তবে বিশেষ উপলক্ষে যা করে থাকেন তাই করুন। বিশেষভাবে সাজিয়ে তুলেন, যেন মেহমানদের আগমন আপনার কাছে বড় আনন্দের উপলক্ষ।

৫. খাওয়ার পর ডেজার্টের ব্যবস্থা থাকলে তা টেবিলের মাঝখানে প্রথম থেকেই রেখে দিন। ডেজার্টের মুখরোচক চেহারা দেখলে অতিথিদের ভালো লাগবে।

৬. দুই দফায় খাওয়ার ব্যবস্থা থাকলে দ্বিতীয় দফা শুরুর আগে সব ময়লা ও খাবারের উচ্ছিষ্ট পরিষ্কার করে ফেলুন।

যদি বুফে সিস্টেম থাকে, তবে নিন এই পরামর্শগুলো।

১. বড় আয়োজনের ক্ষেত্রে বুফে পদ্ধতি খুব কাজের। এতে আপনিও ঝামেলা থেকে মুক্তি পাবেন। তাই বুফে সিস্টেম গ্রহণ করতে পারেন।

২. এই পদ্ধতিটি সবচেয়ে আকর্শণীয়। কারণ একাধারে খাবার সুন্দরভাবে সাজিয়ে রাখা যায়। কাজেই এ কাজটি সুচারুভাবে সম্পন্ন করুন।

৩. এ ক্ষেত্রে সুসজ্জিত লম্বাভাবে কয়েকটি টেবিলের ব্যবস্থা করুন। বিভিন্ন খাবারের পদ আকর্ষণীয়ভাবে সাজিয়ে রাখুন।

৪. অতিথি সমাগম খুব বেশি না হলে টেবিলকে ক্লক ওয়াইজ বাঁকিয়ে দিলেও বেশ সুবিধা পাওয়া যায়।

৫. খাবারের স্টার্টার, জেজার্ট ইথ্যাদি থাকলে দুই তিনটি লম্বা টেবিলের সারি করে নিন। এতে মেহমানরা আরামে খাবার বেছে নিতে পারবেন।

৬. জুস বা পানীয়ের ব্যবস্থা থাকলে একটি বড় ঝকঝকে গামলায় বরফচূর্ণের ব্যবস্থা রাখুন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top