মনটাকে সুখী করার ৩টি বৈজ্ঞানিক উপায়

যেকোনো পরিস্থিতিতে মনের সুখ খুঁজে পাওয়ার অনেক উপায় রয়েছে। খুব সামান্য কাজ দিয়েই পেরেশানি দূর করে ফেলা যায়। এখানে মাত্র ৩টি উপায়ের কথা জানানো হলো। মনোবিজ্ঞানী এবং সমাজ বিজ্ঞানীদের মতে, সুখের সন্ধানে এই তিনটি মৌলিক উপায় ভালো কাজ দেবে।

১. এমন তিনটি বিষয়ের কথা লেখুন যার জন্যে আপনি কৃতজ্ঞ। ওই তিনটি বিষয় আপনার জীবনে ভালো কিছু দিয়েছে। সম্প্রতি গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইউসি ডেভিস-এর মনোবিজ্ঞানীরা কয়েকজন মানুষকে তিনটি দলে ভাগ করে নেন। একটি দলকে বলা হয়, তাদের জীবনে গত সপ্তাহে ঘটে যাওয়া বড় ঘটনাগুলো লেখতে বলা হয়। অন্য দল লিখেছে সমস্যার কথা। আর তৃতীয় দল জীবনের সুখকর স্মৃতির কথা লেখে। দশ সপ্তাহ পর দেখা গেছে, তৃতীয় দলটি অন্যদের চেয়ে অনেক বেশি সুখী।

২. ঝকঝকে পরিষ্কার রাতে পাহাড় বা বনে গিয়ে তারা ভরা আকাশের নিচে সময় কাটিয়ে আসুন। এতে আপনার আবেগ অনুভূতি আবারো শুদ্ধতা ফিরে পাবে। প্রকৃতির মধ্যে দাঁড়িয়ে অসীম আকাশের দিকে যখন তাকাবেন, মনের সব ক্লেশ দুরীভূত হবে। আপনি জীবনটাকে নিয়ে তৃপ্তি বোধ করবেন। এ ধরনের পরিবেশ থেকে ফিরেই মানুষ বলতে পারে, জীবনটা অনেক সুন্দর।

৩. সুন্দর দেশ বা স্থানে ঘুরে আসুন। সুইজারল্যান্ডের মতো মনমুগ্ধকর কোনো দেশে সফর দিয়ে আসুন। ২০১৫ সালে ‘ওয়ার্ল্ডস হ্যাপিয়েস্ট রিসোর্ট’-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, যারা সুন্দর দেশে থাকেন তারা অন্য দেশের মানুষের চেয়ে বেশি সুখী হন। এমন স্থানে ভ্রমণ করে সুখ অনুভব করার পেছনে বৈজ্ঞানিক যুক্তি রয়েছে। নিউরোলজি এবং সাইকোলজির গবেষণায় বলা হয়, সুখী হতে চারটি প্রধান শর্ত রয়েছে। এগুলো হলো- ইতিবাচক থাকুন, নেতিবাচক অনুভূতি থেকে বেরিয়ে আসুন, প্রিয় মানুষের সঙ্গে সময় কাটান এবং মনটাকে প্রফুল্ল রাখুন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top