স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা

স্বাস্থ্যখাতের দুর্নীতি, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবং সংশ্লিষ্ট ‘দুর্নীতিবাজ’ কর্মকর্তাদের অপসারণের দাবিতে প্রগতিশীল সংগঠনগুলোর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশি বাধা এসেছে।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে সামন থেকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচি শুরু করা হয়। কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে ছাত্র ইউনিয়ন, যুব ইউনিয়ন, খেতমজুর সমিতি, কৃষক সমিতি, উদীচী, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, হকার্স ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সংগঠন।

মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচির মিছিলটি পল্টন হয়ে জিরো পয়েন্টে প্রবেশ করলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাদের আটকে দেন। এরপর মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা প্রায় ঘণ্টা খানেক রাস্তা অবরোধ করে সমাবেশ করেন। এসময় যানবাহন চলাচলে বিঘ্নতার সৃষ্টি হয়।

কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন রেজার সভাপতিত্বে এবং ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক অনিক রায়ের পরিচালনায় এসময় বক্তব্য রাখেন, কৃষক সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক নিমাই গাঙ্গুলী, উদীচীর সাধারণ সম্পাদক জামশেদ আনোয়ার তপন, যুব ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, যুব ইউনিয়নের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাজেদুল হক রুবেল, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের কার্যকরী সভাপতি রুহুল আমিন, হকার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াত, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল প্রমুখ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবং সংশ্লিষ্ট দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের অপসারণের দাবি করে নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনা ভাইরাস টেস্ট পরীক্ষার কোনো ফি নেওয়া যাবে না। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন ঠিকাদার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে তদন্ত করে তাদের গ্রেফতার এবং আইনের আওতায় আনতে হবে। একইসঙ্গে অসৎ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল করতে হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে মিঠু গংদের উৎখাত করতে হবে। রিজেন্ট হাসপাতাল এবং জেকেজির দুর্নীতি অধিকতর তদন্ত করে এর সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top