ইমরানের নায়িকা যেভাবে হরভজনের স্ত্রী হলেন

মাঠ ও মাঠের বাইরে সর্বদা চনমনে ও আবেগপ্রবণ থাকেন ভারতীয় তারকা স্পিনার হরভজন সিং। কোনও কিছু একবার জেদ করলে তা করেই ছাড়েন ভাজ্জি পাজি। অনেকেই হয়তো জানেন না নিজের জীবনসঙ্গী বাছার ক্ষেত্রেও এরকমই জেদ করেছিলেন হরভজন সিং। ৮ বছর গীতা বসরার সঙ্গে সম্পর্কে থাকার পর বিয়ে করেছিলেন ভাজ্জি। কিন্তু ‘পঞ্জাব দ্য পুত্তরের’ প্রেম কাহিনি বা প্রেমের শুরু খুবই মজাদার। আজ আপনাদের জন্য রইল ভাজ্জি পাজির প্রেম কাহিনি।

গীতা বসরা। বলিউডের একসময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা। ইমরান হাশমির বিপরীতে ‘দ্য ট্রেন’ সিনেমায় অভিনয় করেই আলোচনায় আসেন তিনি। কিন্তু বলিউডে থিতু হওয়া স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেছে তাঁর। ২০০৭ সালে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য ট্রেন’ সিনেমার একটি গানই বদলে দেয় গীতার জীবন।

টেলিভিশনে ওই সিনেমার গান দেখেন ভারতীয় ক্রিকেটার হরভজন সিং। ভূত চাপে তার মাথায়, যে করেই হোক এ নায়িকার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন তিনি। বহু কষ্টে জোগাড় করেন গীতার নম্বর। ১০ মাস চেষ্টার পর হরভজনের প্রেমে সাড়া দেন গীতা। ৮ বছর চুটিয়ে প্রেমের পর ২০১৫ সালে সাত পাকে বাঁধা পড়েন তাঁরা। এমনটাই জানা গেছে ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে।

মজার ব্যাপার হলো- হরভজন যখন গীতার ফোন নম্বর খুঁজছিলেন, তখন তাঁকে সহযোগিতা করেছিলেন যুবরাজ সিং। প্রথমে প্রেমের বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও পরে এক সাক্ষাৎকারে তা স্বীকার করেন হরভজন। হরভজন জানান, গীতার সঙ্গে তাঁর আলাপ গাঢ় হয় আইপিএলের মাধ্যমে। আইপিএলে প্রথম সিজনে হরভজনের কাছে টিকিট চান গীতা। টিকিট দিতে গিয়েই কফি ডেটে বসে পড়েন তাঁরা।

ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করে গীতা শুরুতে হরভজনের প্রস্তাবে মত দেননি। বন্ধুদের কাছ থেকে হরভজনের ব্যাপক প্রশংসা শুনেছেন গীতা। তারপর সব দিক চিন্তা করে সাড়া দেন ক্রিকেটারের প্রেমে। বিয়ের দুই বছর পর ২০১৭ সালে কন্যাসন্তান জন্ম দেন গীতা। হরভজন-গীতা দম্পতির একমাত্র সন্তানের নাম হীনায়া হীর প্লাহা।

২০০৬ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে মাত্র ছয়টি সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন গীতা। সর্বশেষ মুক্তি পায় গীতা অভিনীত ‘লক’ সিনেমাটি। তবে মা হওয়ার পর পুরোপুরি বিদায় জানান রঙিন দুনিয়াকে। দাম্পত্য জীবনে বেশ সুখেই আছেন হরভজন সিং ও গীতা বসরা। এমনটাও জানা গেছে ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top