আমি খুবই বিপদে আছি, আপু…

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানিয়েছেন নিজের সমস্যার কথা।

“আপু, please আমার নামটা প্রকাশ করবেন না।আমি আপনাদের একজন নিয়মিত পাঠিকা। কখন ভাবিনি আমার কথা গুলা এইভাবে লিখব। please আপু আমার সমস্যার একটা ভাল সমাধান দিবেন।

আপু, আমি একজন B.B.A er last year er student। আমার সাথে একজনের প্রায় ৩ বছর যাবত সম্পর্ক আছে। সে নিজেও একজন student। আমার প্রেমিকের ১ বছর আগে ভার্সিটি থেকে পাস করে বের হওয়া কথা ছিল কিন্ত পরীক্ষায় ফেল করার জন্য এবং আর্থিক সমস্যার কারণে সে এখনও বের হতে পারিনি। সে আমকে অনেক বেশি ভালবাসে এবং আমিও তাকে অনেক বেশি ভালবাসি। আমাদের মধ্যে সব সম্পর্কই হয়েছে।

আমাদের দুই পরিবার আমাদের সম্পর্কের কথা জানে।আমার পরিবার আমাদের সম্পর্ক মেনে নিয়েছে কিন্ত ওর পরিবার এখনও মানেনি। বলছে,আগে জব পাও তারপর দেখা যাবে। আপু, ও আমার কাছ থেকে অনেক কিছু লুকায়। যেমন ওর যে আর্থিক অবস্থা খারাপ, পরীক্ষার রেজাল্ট ইত্যাদি। ওর অন্য কোন মেয়ের প্রতি কোন আগ্রহ নাই। ওর পড়াশোনা শেষ করতে আরও ১ বছর লাগবে। বর্তমানে ও সম্পূর্ণ বেকার, ও কিছুই করে না। কিন্ত আমি টিউশনি করি। আর আমার পরিবারে আর্থিক অবস্থা অনেক ভাল।

আমি ওকে ভুলে অন্য কাউকে যেমন বিয়ে করতে পারব না তেমনি আব্বু-আম্মুকে কষ্ট দিয়ে ওর সাথে থাকতে পারব না। আপু বাসা থেকে আমাকে বিয়ের জন্য অনেক চাপ দিচ্ছে। আমার পরিবার বলছে আমার প্রেমিক যেন ওর পরিবার নিয়ে আসে। তারপর তারা কিছু একটা করে রাখবে বা পাকা কথা বলে রাখবে। তারপর ১-২ বছর পর আমাদের বিয়ের অনুষ্ঠান করবে। কিন্ত আপু, ওর পক্ষে এখন ওর পরিবার আনা সম্ভব না।

আপু, আমার পরিবারের সাথে ও নিজে ২ বার দেখা করেছে, তাই এখন আমার পরিবার চাইছে ওর পরিবারের সাথে দেখা করতে। ওর আব্বু একজন হাই স্কুলের teacher, ওর আম্মু housewife,ওর বড় বোন ভার্সিটির টিচার এবং আপু বিবাহিতা। ওর ছোট একটা বোনও আছে আর আমার প্রেমিক ওর বোনের সাথে ঢাকায় থাকে। ওর পরিবার থাকে গ্রামে।

আমার বয়স ২৩ আর আমার প্রেমিকের বয়স ২৬ বছর। আপু এখন আমি কী করতে পারি?? আপু plz আমাকে একটা সমাধান দেন। আমি খুবই বিপদে আছি।”

পরামর্শ:

সত্যি কথা বলতে কি আপু, আপনার পরিবারের কোন দোষ আমি দেখতে পাচ্ছি না। তাঁরা যা বলছেন, একদমই উচিত কথা বলছেন। দুই পরিবারের মাঝে এতটা বৈষম্য থাকার পরও তাঁরা মেণে নিয়েছেন। তাছাড়া এখনোই বিয়েও চাইছেন না, কেবল পরিবারের সাথে দেখা করতে চাইছেন। আপনি যদি নিজের পরিবারকে এভাবে কষ্ট করে ম্যানেজ করতে পারেন, প্রেমিকেরও উচিত ম্যানেজ করা। আপনি একলা কেন সব স্যাক্রিফাইস করবেন? তাছাড়া সম্পর্কে ছেলেদেরই তো দায়িত্ব বেশি থাকে। তাই না? সম্ভব না বলে কোন কথা নেই। আপনি পরিবারকে ম্যানেজ করতে পারলে তাঁকেও পারতে হবে।

শুনতে খারাপ শোনালেও বলি আপু, এই ছেলেটির ব্যাপারে আপনার আরও একটু ভেবে দেখে উচিত। ছেলেটির খারাপ ফলাফল, কিছু না করে বেকার বসে থাকা ইত্যাদি কোন ভালো ভবিষ্যতের ইঙ্গিত করে না। অবস্থাপন্ন পরিবারের মেয়ে হওয়া সত্ত্বেও আমি টিউশনি করে উপার্জন করেন। কেবল টিউশনি কেন, আজকাল স্টুডেন্টরা অনেক ভালো জব করতে পারে। সেখানে ছেলেটির আর্থিক অবস্থা খারাপ সত্ত্বেও সে ঘরে বসে থাকে বোনের বাড়িতে গলগ্রহ হয়ে। এটা স্পষ্ট যে ছেলেটি অলস প্রকৃতির। তাছাড়া সে আপনার কাছে নিজের প্রকৃত অবস্থা লুকায়, এটাও একটা বড় সমস্যা। তাই আমি মনে করি এখনোই এই ছেলেটির সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হবার দরকার নেই। আরও কিছদিন দেখুন।

এখন আপনি যা করতে পারেন, মা বাবাকে বুঝিয়ে বলুন যে আপনি ছেলেটিকে আরও কিছুদিন দেখতে চান কারণ এটা আপনার জীবনের প্রশ্ন। আপনি দেখতে চান ছেলেটির ফলাফল কেমন হয় এবং সেটার পর সে কী করে। মা বাবাকে বুঝিয়ে বলুন যে ছেলেটি প্রতিষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত আপনি কোন পাকা কথায় যেতে চান না। সে যদি প্রতিষ্ঠিত হতে না পারে, তখন আর সরে যাওয়ার পথ থাকবে না। তাই তাঁকে আরও কিছুদিন সময় দিতে চান। সেই সময়ের মাঝে সে সেটল হতে না পারলে আপনি মা বাবার সিদ্ধান্ত মেনে নেবেন।

এই কথা শুনলে মনে হয় না মা বাবা খুব বেশী আপত্তি করবে বা বিয়ের জন্য জোর দেবে। অন্যদিকে ছেলেটিও হাতে সময় পাবে। সে যদি সত্যিই আপনাকে ভালোবেসে থাকে, তাহলে এই সময়ের মাঝে সে নিজেকে সেটলও করতে পারবে আর মা বাবাকেও বুঝিয়ে ফেলতে পারবে। আর যদি না পারে, বুঝে নেবেন যে আপনার ভবিষ্যৎ নিয়ে সে সিরিয়াস না।

ভালোবাসি কেবল মুখে বললেই হয় না আপু। প্রমাণও করতে হয়।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top