স্বামীর সাথে লুকিয়ে দেখা করি, মা-বাবা খারাপ কথা বলে…

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন তরুণী লিখেছেন

আমি আর আমার স্বামী সমবয়সী। আমি স্নাতক ৩য় বর্ষে পড়ি। আমার স্বামীও পড়াশোনা করে। আমাদের ২ বছর বিয়ে হয়েছে। প্রথমে আমার বাসার কেউ না জানলেও বিয়ের কথা আজ নয় মাস ধরে বাসার সবাই জানে। কিন্তু এখনও আমাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা হয়নি। আমার পরিবার এজন্য সময় চেয়েছে। এদিকে আমার পাড়াপড়শি বিয়ের ব্যাপার কিছু জানে না, তাই আমার মা বাবা আমাকে আমার স্বামীর সাথে বাইরে কোথাও বের হতে দিচ্ছেনা । নানা রকম মিথ্যা বলে বাইরে স্বামীর সাথে বের হতে হয়।

আমি সব সময় আমার মা বাবাকে বলি ছোট খাটো একটা অনুষ্ঠান করে সবাইকে জানিয়ে দেওয়ার জন্য বিয়ের কথাটা, কিন্তু উনারা আমার কথায় কোন গুরুত্ব দেন না। বলেন পরে বড় করে অনুষ্ঠান করবেন। এদিকে দিনের পর দিন আমি মিথ্যা বলে আমার স্বামীর সাথে দেখা করি আর যদি উনারা জানেন যে আমি ওর সাথে দেখা করতে গেছি তাহলে নানা রকম খারাপ কথা বলে । আমি নাকি উনাদের মান সম্মান নষ্ট করছি। আমি সব সময় মানসিক অশান্তিতে থাকি। একদিকে আমার স্বামীকেও সামলাতে হয় আমার মা বাবার ব্যাপারে।

এইসব সমস্যার সব চেয়ে বড় কারণ হচ্ছে আমার স্বামীর আর্থিক অবস্থা ভাল না। তাই আমার পরিবার এর লোকজন ওকে কথায় কথায় ছোট করে। কিন্তু ও নিজের টাকায় নিজে সব কিছু করে। আমাকেও ওর সাধ্য অনুযায়ী চালানোর চেষ্টা করে। তারপরও আমাকে শুনতে হয় ওই ছেলে তোমাকে খাওয়াতে পারবে না, পড়াতে পারবে না। তোমাকে নিজের খরচ জোগাড় করতে হবে। তখন খুব খারাপ লাগে। ওরা ভবিষ্যৎ এ কি হবে না হবে তা এখনই আমাকে বলে ফেলছে।

আমি এখন কী করতে পারি? উল্লেখ্য, আমার স্বামী একটা ডিজাইন কম্পানিতে চিপ ডিজাইনার এর জব করছে। এখন আমি কি আমার বাবা মার সম্মান রক্ষা করার জন্য সব সহ্য করব নাকি স্বামীর কাছে যাব?

পরামর্শ :

আপনার কথা শুনে আমার মনে হচ্ছে আপনাকে ছেলেটির হাতে তুলে দেয়ার তেমন কোন ইচ্ছা পিতামাতার নেই। বরং তাঁরা ভাবছেন সময়ের সাথে সম্পর্কটি নষ্ট হয়ে যাবে বা তাঁরা নষ্ট করে দেবেন। সেই অপেক্ষাতেই গড়িমসি করছেন।

যাই হোক, এত কম বয়সে বিয়ে করে বুদ্ধিমানের কাজ করেন নি। কিন্তু যেহেতু বিয়েটি করেই ফেলেছেন, সেহেতু বিষয়টি রক্ষা করতে হবে। আপনার শ্বশুরবাড়ির অবস্থা কিছু জানান নি। যেমন শ্বশুরবাড়িতে মেনে নিয়েছে কিনা, আপনি বউ হিসাবে এখন গেলে তাঁরা মেনে নেবেন কিনা ইত্যাদি।

আপনি একটা কাজ করুন আপু, স্বামীকে বলুন তাঁদের বাড়িতে কথা বলে বাড়ি থেকে বিয়ের প্রস্তাব পাঠাতে, যেভাবে আর ১০ টা বিয়েতে হয়। যেহেতু বিয়ে আপনারা করেই ফেলেছেন, সেটার একটা প্রাতিষ্ঠানিক রূপ তো দিতেই হবে। তবে হ্যাঁ, আপনার পরিবার রাজি হবে না। রাজি না হলেও পাঠান। যদি আপনারা চেষ্টা করার পরও পরিবার রাজি নাই হয়, তাহলে স্বামীর কাছে চলে যান। তবে মাথায় রাখবেন, আর্থিক কষ্টের মুখে পড়তে হবে।

আর হ্যাঁ, নিজে উপার্জন করে নিজের প্রয়োজন মেটানোতে একদমই লজ্জার কিছু নেই। স্বামীর টাকায় আয়েশ করার জন্য বিয়ে নয়, বিয়ে স্বামীর ভালোবাসা পাবার জন্য। তাই পরিবাএর কথা কানে নেবেন না। নিজের লেখাপড়া ও ক্যারিয়ারেই অধিক গুরুত্ব দিন। সমস্যা হবে, মোকাবেলার জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকুন।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top