যখনই মনে হয় সে অন্য কাউকে স্পর্শ করেছিল…

প্রশ্নটি আমাদের ফেসবুক পেজে করেছেন : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন তরুণী

আমার একজনের সাথে আজ প্রায় ৬ বছরের সম্পর্ক। আমাদের পরিবারের সবাই আমাদের কথা জানে আর তারা মোটামুটি রাজী আছে। আমরা দুজনই পড়ালেখা করি। আমি মেডিকেলে আর ও একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিঃ পড়ছে। আমাদেরকে আমাদের অভিভাবকরা বলেছেন, আমাদের পড়ালেখা শেষ হলে বিয়ে দেবেন।

আমরা সমবয়সী আর ও অনেক রাগী। ওর যখন রাগ হয় তখন ও শুধু আমাকে ছেড়ে দিতে চায়। যদিও আজ পর্যন্ত কোনদিনই আমাকে ছেড়ে সত্যি সত্যি চলে যায়নি। আমার ওকে খুব সন্দেহ হয় আর ওর এমন আচরণে আমার খুব খারাপ লাগে। আমার সাথে ওর শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে অনেকবার। আমি তাই ওকে ছাড়তে পারিনা।

কিন্তু ও মাঝে মাঝে আমার সাথে খুব খারাপ ব্যবহার করে। আমাকে গালাগালি করে। এমন অবস্থায় আমি কী করবো আপু? আর আরেকটা কথা জানিয়ে রাখি যে ওর আগে একটি মেয়ের সাথে সম্পর্ক ছিলো। ওই মেয়েটা ওর চেয়ে বড় ছিলো আর তার সাথেও ওর শারীরিক সম্পর্ক হয়েছিলো। আমার যখনই মনে হয়ে যায় যে ও আগে অন্য কাউকে স্পর্শ করেছিলো, তখন খুব কষ্ট হয়। আমাকে একটা পরামর্শ দিন।

পরামর্শ

আপনার শেষ প্রশ্নের জবাব আগে দিই আপু। আপনি তো জেনে শুনেই সম্পর্ক করেছিলেন যে ছেলেটির একটি অতীত আছে। এখন সেটা নিয়ে কষ্ট পেলে চলবে? তবে হ্যাঁ, যে ছেলেটির আগের সম্পর্কেও শারীরিক সম্পর্ক হয়েছিল, তাঁর সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে আপনি ভুল করেছেন। কী অবলীলায় বললেন যে “অনেকবার” শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে। কিন্তু এই অনেকবার শারীরিক সম্পর্কই প্রেমের মধুরতা নষ্ট করে দেয়। বিশেষ করে অনেক পুরুষের কাছেই প্রেমিকার সাথে সম্পর্কটা তখন আর আকর্ষণীয় লাগে না।

দ্বিতীয় বিষয় হচ্ছে, কারো সাথে যদি আপনার থাকতে ইচ্ছা না করে, তাহলে জোর করে থাকার কোন মানে নেই। কেবল শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে বলেই ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে করবেন, তাহলে দুজনের জীবনটাই নষ্ট হয়ে যাবে। আপনার তো হবেই, ছেলেটিরও হবে। তাই বিয়ের আগেই ভালোভাবে ভেবে দেখুন।

রাগ একটা সমস্যা বটে, তবে রাগ কাউকে ছেড়ে দেয়ার কারণ হতে পারে না। আপনি মেডিকেল স্টুডেন্ট, ভালোই জানেন যে থেরাপির মাধ্যমে রাগ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব। ছেলেটির ক্ষেত্রে তেমন কিছু কাজ করে কিনা ট্রাই করে দেখতে পারেন। আর আপু, অকারণে সন্দেহ করে নিজেদের ভবিষ্যৎ বিষিয়ে তুলবেন না প্লিজ। এমনও হতে পারে যে সবকিছু আপনি অকারণেই ধরে নিচ্ছেন, পরিস্থিতি যতটা খারাপ ভাবছেন আসলে ততটা খারাপ নয়।

 

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top