ঘটকের আনা ছবি দেখে ভালোবেসে ফেলেছি…

আপু আমার সমস্যাটা একটু অন্যরকম। আমার বাসা থেকে বিয়ের জন্য ছেলে দেখছে। একটা প্রপোজাল আসলো। ছেলে ফার্মাসিস্ট কিন্তু আব্বু আম্মুর ছেলে পছন্দ না, কারণ ছেলের চাইতে আমি ভালো জব করি আর ওদের ফ্যামিলির অবস্থা আমাদের থেকে ভালো না। প্রপোজালটা এসেছিল ঘটকের মাধ্যমে আর ঘটক আমার আত্নীয়, উনি কোন প্রফ্রেশনাল ঘটক না। কিন্তু ছেলের ছবি দেখে আমার ভাল লেগে যায় আর এর মধ্যে আম্মু আমাকে বলে দেয় যে আমি যেন ছেলের সাথে দেখা না করি। কিন্তু আমি আম্মু আব্বুকে না জানিয়ে ছেলের সাথে দেখা করি যা শুধু ঘটক আংকেল জানত।

পরে ছেলে আমাকে দেখে, আমরা ৪ ঘন্টা কথা বলি। ও আমাকে বলে আপনার অফিসের পাশে আমার বাসা একদিন চলে আসেন। বাড়িতে আম্মু আব্বু সাথে দেখা করেন। মনে হয়েছিল ও আমাকে পছন্দ করে আর ও আমার সাথে প্রায়ই ফোনে কথা বলত। আর ফোনটা আমি দিতাম, ও প্রয়োজন ছাড়া ফোন দিতো না। আর ও বলত ওর কোন গালফ্রেন্ড ছিল না, আমিই ওর লাইফে প্রথম মেয়ে যার সাথে ও এতক্ষণ কথা বলে।

আপু, আমার সমস্যা আমি উপরে উপরে দেখাই আমি ডমিনেটিং টাইপের কিন্তু আমি আসলে তা না। ও মনে করত আমি ওকে ডমিনেট করছি। একদিন আমি ওকে ছাগল বললাম আর ও এই ম্যাসেজটা ওর মাকে দেখালো আর একটা ম্যাসেজ দিলাম যে আমি তোমাকে পছন্দ করে ফেলেছি, তুমি কি আমাকে পছন্দ করো? ও আমার এই কথা শুনে খুব রেগে গেল। পরে যখন আমি ওকে ফোন দিলাম, তখন ও আমাকে বলল আমি আপনার ম্যাসেজ-এর ব্যাপারে আম্মুর সাথে কথা বলছি। আমি এই কথা শুনে খুব রেগে গিয়ে ওকে বকা দিলাম। পরে ও আর আমার সাথে যোগাযোগ করেনি। পরে ঘটক আংকেলকে ওর বাবা বাসায় দাওয়াত দিল। তখন ও বলে যে আমার নাকি অনেক রাগ আমি একটুতে রেগে যাই। পরে ও একদিন সরি বলে ওকে ফোন দিলাম, তখন ও আমাকে বলে আপনার বাবা মা আপনাকে ভদ্রতা শিখায়নি? আমার খুব কষ্ট লেগেছিল। পরে আমার এক ফ্রেন্ডকে ওর কথা বললাম । আমার ফ্রেন্ড ওকে ফেসবুকে এড পাঠায় আর ওকে পটানোর চেষ্টা করে আর ও পটে যায় । পরে ফ্রেন্ড বলে- দেখ কত ভদ্র। আমি এই দেখে রেগে গিয়ে ওকে অনেক বকা দিই আর ওর জ- পড়াশুনা নিয়ে বকা দিই। সেও আমাকে অনেক বকা দেয়। পরে আমি ওর বাবা কে ফোন দিয়ে সরি বলি আর ওর মা এর সাথে কথা বলতে চাই । কিন্তু ওর মা বলে আমার সাথে কথা বলবেনা। আর ঘটক আংকেলকে কে বলে যে আমার সাথে বিয়ে দিবে না। আপু আমি কী করে সব মিউচুয়াল করব। আমি ওকে ভালেবেসে ফেলেছি। এখন কী করে ওর রাগ ভাঙ্গাবো?

 

পরামর্শ :

চিঠিটা পড়ে অবাক হচ্ছি আপু। কেবল ছবি দেখে ভালো লেগেছে বলে এত ডেসপারেট? বেশি ডেসপারেট হতে গিয়ে আপনি নিজেও বুঝতে পারেন নি যে নিজেকে কতটা ছোট করে ফেলেছেন। সত্যি কথা বলি, ছেলে এবং তাঁর পরিবার মনে করছে যে আপনি খুবই ফালতু একটি মেয়ে, তাঁদের ছেলের পেছনে উঠেপড়ে লেগেছেন। এবং তারা আসলে কখনো ছেলেকে আপনার সাথে বিয়ে দেবে না। আর ছেলেটিও যেমন ভাব করছেন, ততটা নিরীহ তিনি নন। হলে আপনার বান্ধবী তাঁকে পটিয়ে ফেলতে পারতো না। তাঁরও আপনাকে বিয়ে করার কোন ইচ্ছা নেই। নেই বলেই সে আপনাকে পছন্দ করে কিনা জিজ্ঞেস করা মাত্র সম্পর্কের ধরণ বদলে গিয়েছে। পাত্র পুরোপুরি মামা’স বয়। মায়ের যাকে পছন্দ ছেলে টাকেই বিয়ে করবে, আপনাকে নয়।

তাছাড়া আপনার মা বাবাও তো এই পরিবারকে পছন্দ করে না। তাহলে কেন সবাইকে কষ্ট দেবেন আর নিজেকে বারবার ছোট করবেন? স্যরি আপু, আপনি আপনাকে সবকিছু মিউচুয়াল করার পরামর্শ দেব না। কারণ তাঁকে আপনার ক্ষতি হবে। আর যে মানুষ ভালোবাসে না, তাঁর রাগ ভাঙানো যায় না।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top