সে আমার আইডি থেকে বাজে বাজে স্ট্যাটাস দিচ্ছে…

আপু আর সহ্য করতে পারছি না। সত্যি বলছি, এবার সামনে সবই অন্ধকার দেখছি, বেঁচে থেকেও নিজেকে মৃত মনে হচ্ছে। জানি জীবনে প্রত্যেকটা মানুষকেই নানা সমস্যার মধ্য দিয়ে জীবন পাড়ি দিতে হয় আর প্রতিটা মানুষের তার নিজের সমস্যাকেই বড়ো বলে মনে হয়, আমার ক্ষেত্রেও ভিন্ন কিছু না। নিজের চরম বিপদে পরামর্শটা আপনার কাছ থেকেই চাইছি। এর থেকে মুক্তির উপায় বলে দিন।

আমার না, “ই” একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। প্রায় ৭ মাস আগে ফেসবুকে এক ছেলের সাথে আলাপ হয় তারপর ভালোলাগা, ভালোবাসা। ভার্চুয়াল বিষয় তো সবই তাড়াতাড়ি ঘটে যায়। হঠাৎ সম্পর্কের ৩ মাস পর আমার বিয়ে অন্য জায়গায় ঠিক হয়ে গেলো, মনে মনে কেমন জানি অপরাধবোধ কাজ করছিলো বিষয়টা ‘স’ কে জানালাম। ‘স’ যার কথা বলছিলাম ৭মাস আগে সম্পর্ক ছিলো। সে পুরোপুরি ভেঙে পড়লো, বলে রাখা ভালো ‘স’ এমনিতেই আমাকে অনেক ভালোবাসতো কিন্তু ও প্রায় নেশা করতো। সিগারেট থেকে ইয়াবা সবই খেতো। হাজারও চেষ্টায় আমি ব্যর্থ হই পারিনি, এইসব ছাড়াতে।

বিয়ের কথা বলাতেই সে বললো সে এইসব খাওয়া ছেড়ে দিবে। এদিকে আস্তে আস্তে আমি ওকে ইগনোর করছিলাম। আমি ভেবেছিলাম মায়া বাড়িয়ে লাভ নেই, পরে ও বেশি কষ্ট পাবে। মধ্যেখানে আমার ফেসবুক আইডি নষ্ট হয়ে যায় তো ভেরিফাই চাইছিলো। ঠিক করার জন্য ‘স’ কে দিয়েছিলাম। কিন্ত আপু আইডি ঠিক হওয়ার পরও ‘স’ আমাকে আমার আইডি দেয়নি। বর্তমানে ও আমার আইডি ব্যবহার করছে, সবাই ভাবছে আমি। আর প্রায়ই বাজে বাজে স্ট্যাটাস দিচ্ছে, আমার ছবি আপ দিচ্ছে। আইডিতে আমার বড়ো আপু-ভাইয়া,স্যার ম্যাম অনেকেই আছে। সমস্যাটা সেখানে। না পারছি কাউকে বলতে, না পারছি নিজে সামলাতে। আর আইডিটা ভেরিফাই করার পর এতোই মজবুত হয়ে গেছে যে আইডিতে রিপোর্ট মারলেও কাজ হচ্ছে না। ওর সাথে কথা বললে যখন বললাম আইডি দিতে আমাকে বলে আজ দিবো, কাল দিবো কিন্তু দেয় না। আর অবশেষে বিয়ের বিষয়টা সাজানো ছিলো বাসায় আমাকে চেক করার জন্য মিথ্যে বলেছিলো

এখন আমি কী করবো আপু ? এইভাবে চলতে থাকলে আশেপাশে মানুষ আমাকে খারাপ ভাববে, আইডিটা বন্ধ না করতে পারলে আমার জীবনটাই শেষ। ধন্যবাদ আপু আশা করি তাড়াতাড়ি উওরটা পাবো।

প্রশ্নটি আমাদের ফেসবুক পেজে করেছেন : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন তরুণী

পরামর্শ

ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়ে যাওয়ার মত সামান্য কারণে মানুষ মরে যেতে পারে, এটা তো জীবনে প্রথম শুনলাম আপু। যাই হোক, তোমার বয়স কম তাই সবকিছুকেই একটা ঝামেলায় রূপান্তর করে ফেলেছ। তোমার উচিতই হয়নি একটা প্রেমে জড়িয়ে যাওয়া। তাও এমন ছেলের সাথে। আবার প্রেম করলে তো করলে, আরেক জায়গায় বিয়ের খবর শুনেই মন বদলে গেলে। তাহলে ওই ৭ মাসের মন দেয়া নেয়ার কি কোন মূল্য নেই?

সত্যি কথা হচ্ছে, এই আইডি তুমি কখনোই ফিরে পাবে না। ছেলেটি আইডি ভেরিভাই করেছে অতি অবশ্যই তাঁর ই মেইল ঠিকানা দিয়ে। ফলে সে তোমাকে আইডি দিলেও তোমার আইডির কন্ট্রোল আসলে তাঁর কাছেই থাকবে। আর ফেসবুকে রিপোর্ট করলেও আইডি বন্ধ হয় না, এমন নজির নেই। ফ্রেন্ড লিস্টে যতজন মানুষ আছে, তাঁর কমপক্ষে ৩ ভাগের এক ভাগ সংখ্যক রিপোর্ট হলে তবেই বন্ধ হবে। তুমি নিজের বর্তমান আইডি থেকে পরিচিত সবাইকে জানিয়ে দাও যে ওই আইডি হ্যাকড, সেটাকে যেন ব্লক ও রিপোর্ট করে। একই সাথে বিভিন্ন গ্রুপের মাধ্যমে ওই আইডি রিপোর্ট করাও। একই সাথে নিজের বর্তমান আইডি থেকেও রিপোর্ট করো যে সেটা তোমার আইডি। আর তাঁর আগে নিজের এই আইডির ফ্রেন্ড লিস্ট ভারী করে ফেলো। একটু চেষ্টা করলেই হয়ে যাবে।

ভবিষ্যতে প্রেম করার আগে একটু ভেবেচিন্তে করবে।

 

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top